× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ মার্চ ২০২১, সোমবার

বিশ্বের দৃষ্টি আমেরিকায়

প্রথম পাতা

হেলাল উদ্দীন রানা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে
২০ জানুয়ারি ২০২১, বুধবার

পুরো দুনিয়ার দৃষ্টি এখন যুক্তরাষ্ট্রে। আজ দেশটির ৪৬তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিচ্ছেন জো বাইডেন। নানা নাটকীয়তার পর ক্ষমতা ছাড়ছেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্প। ক্ষমতা হস্তান্তরকে কেন্দ্র করে টানটান উত্তেজনা মার্কিন মুল্লুকে। উদ্বেগ-আতঙ্ক চারপাশে। ক্যাপিটল হাউসের ঘটনা এই উদ্বেগ আরো বাড়িয়েছে জনমনে। তাই বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান ঘিরে নেয়া হয়েছে নজিরবিহীন নিরাপত্তা। আমেরিকার সবচেয়ে বয়স্ক প্রেসিডেন্ট হিসেবে বাইডেন শপথ নিচ্ছেন।
৭৮ বছর বয়সী বাইডেন নয়া ইতিহাস গড়ে ডেমোক্রেটদের ক্ষমতায় নিয়ে এসেছেন। জো বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে দেশটিতে। অভিষেক অনুষ্ঠানে নিয়োজিত নিরাপত্তারক্ষীদের ভেতর থেকেই হামলার আশঙ্কা করছেন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তারা। কড়া নজরদারি করা হচ্ছে নিরাপত্তারক্ষীদের ওপর। ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় ভেতরের নিরাপত্তারক্ষীদের মৌন সমর্থন ছিল- এমন অভিযোগ ওঠার পর এখন কাউকেই নজরদারির বাইরে রাখা হচ্ছে না। ক্যাপিটল হিলে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত সদস্যরা বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানকে সমর্থন করে কিনা তা এফবিআইয়ের সঙ্গে যৌথভাবে খতিয়ে দেখছেন সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা।

প্রেসিডেন্ট বাইডেনের কন্যা অ্যাশলি বাইডেন শপথ অনুষ্ঠানের নিরাপত্তার বিষয়ে তার উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তবে ভারপ্রাপ্ত প্রতিরক্ষামন্ত্রী ক্রিস্টোফার মিলার বলেছেন, বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠান ঘিরে ভেতরের কোনো হুমকি রয়েছে- গোয়েন্দা তথ্যে এমন কিছুই পাওয়া যায়নি। তার পরও নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কোনো ধরনের ত্রুটি রাখা হয়নি। ইউএস আর্মি সেক্রেটারি রায়ান ম্যাকারথি ন্যাশনাল গার্ড কমান্ডারের প্রতি বাহিনীর ভেতর থেকে শপথ অনুষ্ঠানে কোনোরকমের নিরাপত্তার হুমকি আছে কিনা তা সতর্কতার সঙ্গে খতিয়ে দেখার আহ্বান জানিয়েছেন। তবে ন্যাশনাল গার্ড কর্মকর্তারা এমন আশঙ্কা উড়িয়ে দিয়েছেন।

বাইডেনের শপথ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থা জারি করা হয়েছে। সম্ভাব্য ড্রোন হামলার জন্য সজাগ রয়েছে নিরাপত্তা বাহিনী। এফবিআই-এর জারি করা এলার্টের প্রেক্ষিতে ২১টি রাজ্যে ন্যাশনাল গার্ড নামানো হয়েছে। এফবিআই বলছে এখনো হুমকির মাত্রা রয়েছে সর্বোচ্চ পর্যায়ে।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে প্রায় একা হয়ে পড়েছেন বিদায়বেলায়। ইতিমধ্যে হোয়াইট হাউসের সিনিয়র-জুনিয়র স্টাফরা প্রেসিডেন্টকে ছেড়ে চলে গেছেন। তবে ট্রাম্প এখনো নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন বলে দাবি করছেন। ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থার মধ্যেও গত সোমবার ওয়াশিংটন ডিসির নিকটবর্তী ভার্জিনিয়ার রিচমন্ডে স্বল্পসংখ্যক উগ্রবাদী সশস্ত্র ট্রাম্প সমর্থক বিক্ষোভ করেছে। সিটিজেন ডিফেন্স লিগের ব্যানারে জড়ো হলেও এই গ্রুপ কট্টর শ্বেতাঙ্গবাদী প্রাউড বয়, বগালো ও ব্ল্যাক প্যান্থারের সঙ্গে জড়িত। তারা তাদের সংবিধানের দ্বিতীয় সংশোধনীর অধিকারের বলে এই বিক্ষোভ করে।

অন্যদিকে, ৬ই জানুয়ারি ক্যাপিটল ভবনে হামলার সময় পেনসিলভেনিয়ার মহিলা রেইলি জুন উইলিয়ামস স্পিকার ন্যান্সি পেলোসির অফিস থেকে তার ল্যাপটপ চুরি করে নিয়ে যায়। পরে উইলিয়ামস এই ল্যাপটপ রাশিয়ায় তার বন্ধুর কাছে পাঠিয়ে দেয়। এফবিআই এই ডিভাইস রাশিয়ান ফরেন ইন্টেলিজেন্সের কাছে বিক্রি করা হয়েছে বলে ধারণা করছে। এফবিআইয়ের হাতে একটি ভিডিও ফুটেজ রয়েছে, যাতে স্পিকার অফিসে উইলিয়ামসকে সন্ত্রাসীদের নানা নির্দেশ দিতে দেখা যাচ্ছে। স্থানীয় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী হ্যারিসবার্গ পেনসিলভেনিয়ায় অভিযান চালিয়েও উইলিয়ামসকে আটক করতে পারেনি। উইলিয়ামস এখন পলাতক রয়েছে। এফবিআই এ বিষয়ে আরো তদন্ত করছে।
কোর্টে দাখিল করা একটি নথি থেকে এই তথ্য পাওয়া গেছে। এ নিয়ে ইউএসএ টুডে একটি রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় এ পর্যন্ত শতাধিক ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মামলা হয়েছে দুই শতাধিক। এফবিআই হামলার ফুটেজ, ছবি ও সেল ফোনের ডাটা বিশ্লেষণ করে সন্ত্রাসীদের দরোজায় দরোজায় টোকা দিচ্ছে এখন।

শপথ: অনুষ্ঠানে যা থাকছে...
যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে জো বাইডেন শপথ নিবেন ২০শে জানুয়ারি। যুক্তরাষ্ট্রের পূর্বাঞ্চলীয় সময় দুপুরের কিছু আগে (বাংলাদেশ সময় বুধবার রাত ১০টার অব্যবহিত পর)। এবারের শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানে কি কি থাকছে? অনুষ্ঠান কেমন হবে? কারা যোগ দিচ্ছেন এতে? এ নিয়ে কৌতুহল রয়েছে সাধারণের মাঝে। কোভিড অতিমারি দুর্যোগের কারণে এমনিতেই বিপর্যস্ত গোটা দেশ। প্রায় ৪ লাখ মানুষের প্রাণহানি ঘটেছে আমেরিকায়। সবকিছু বিবেচনায় অনুষ্ঠানের কলেবর এবার কমিয়ে আনা হয়েছে। থাকছে না ঐতিহ্যবাহী অনেক কিছুই। করোনা অতিমারির জন্য প্রথম থেকেই অভিষেক অনুষ্ঠানকে কাটছাঁট করে আকার ছোট করে আনা হয়। এরপর গত ৬ই জানুয়ারি মার্কিন আইনসভা ক্যাপিটল হিলে সন্ত্রাসী হামলার পরবর্তী পরিস্থিতিতে আরো সংক্ষিপ্ত করে ফেলা হয়েছে। এবার ১০টির বদলে মার্কিন আইনপ্রণেতারাও মাত্র ২টি করে টিকিট পাবেন। সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার শপথ অনুষ্ঠানে প্রায় ২০ লাখ লোক সমাগম হয়েছিল। কিন্তু এবার কয়েক হাজারের বেশি হবে না। প্রেসিডেন্ট বাইডেন নিজেও চান না অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়ুক। তিনি নিজে সবাইকে ঘরে বসে টেলিভিশনে অনুষ্ঠান উপভোগ করার আহ্বান জানিয়েছেন। যদিও লোকজন না আসায় মেট্রো ওয়াশিংটনের ব্যবসা বাণিজ্যের বিরাট ক্ষতি হবে। শপথ অনুষ্ঠান কমিটির নির্বাহী পরিচালক মাজু ভার্গেস জানিয়েছেন, অনুষ্ঠানের বহুকিছু হবে ভার্চ্যুয়ালি। যদিও তাদের ইচ্ছে ছিল জাতির এই কঠিন সময়ে সবার অন্তর্ভুক্তি মূলক একটি অনুষ্ঠান আয়োজনের। যা সকল আমেরিকানকে ঐক্যের বন্ধনে আবদ্ধ করতে পারে। অতিমারিসহ নানা কারণে সেটি সম্ভব হচ্ছে না।

দুপুরের কিছু আগে নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জোসেফ আর, বাইডেনকে শপথবাক্য পাঠ করাবেন ইউএস সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি জন জি, রবার্ট। বাইবেল ছুঁয়ে মাত্র ৩৫ শব্দের শপথ নেয়ার সময় প্রেসিডেন্টের পাশে থাকবেন ফার্স্টলেডি জিল বাইডেনসহ তার পরিবারের সদস্যরা। আমেরিকার বিখ্যাত ব্যান্ড রালফ লোরেনের গাঢ় নীল স্যুটের সঙ্গে হালকা নীল শার্ট পরে বাইডেন শপথ নেবেন। নতুন প্রেসিডেন্টের আনুগত্যের অঙ্গীকার পরিচলনা করবেন একজন অগ্নি নির্বাপক কর্মী। আর বুধবার প্রার্থনা অনুষ্ঠান পরিচলনা করবেন বাইডেনের ঘনিষ্ঠ বন্ধু একজন ধর্ম যাজক।

এরপর নতুন প্রেসিডেন্ট তার ইনোগ্ররাল বক্তব্য রাখবেন। তারপর সম্মিলিত সামরিক বাহিনীর কুচকাওয়াজের অভিবাদন গ্রহণ করবেন নতুন প্রেসিডেন্ট ও সকল বাহিনীর কমান্ডার ইন চিফ। এই অভিষেক অনুষ্ঠিত হবে মার্কিন আইনসভা ক্যাপিটল হিলের পশ্চিম ফ্রন্টে।

অনুষ্ঠানের নিরাপত্তার মূল দায়িত্বে থাকবে মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস ও এফবিআই। অনুষ্ঠানে দু’জন বিখ্যাত সেলিব্রেটি অংশ নেবেন। লেডি গাগা যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করবেন। জেনিফার লোপেজও গাইবেন  গান। তবে ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে যুক্তরাষ্ট্রের অনেক সেলিব্রিটির অংশগ্রহণ থাকবে। তারা দর্শক-শ্রোতাদের জন্য পারফরম করবেন। করোনায় নিহতদের স্মরণে উৎসর্গ করা এই অনুষ্ঠান সাজানো হয়েছে কবিতা আবৃত্তি, গান ও নৃত্য দিয়ে।

রাত সাড়ে ৮টায় প্রাইম টাইমে ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠান হবে। জাতীয় টেলিভিশনে প্রচারিত হবে এই অনুষ্ঠানমালা। এতে সেলিব্রেটিদের মধ্যে থাকবেন- জাস্টিন টিম্বারলেইক, ডেমি লাভাটো, এন্ট ক্লিমন্স, জন বন জবি, ফো ফাইটার, জন লেজেন্ট ও ব্রুস স্প্রিংস্টিন। এই অনুষ্ঠানের হোস্ট থাকবেন টম হ্যান্‌ক।

ভার্চ্যুয়াল অনুষ্ঠানে সকল শিল্পী কলাকুশলী যার যার অবস্থান থেকে অংশ নেবেন।
নতুন প্রেসিডেন্ট ও ভাইস প্রেসিডেন্ট শপথ নেয়ার পর হোয়াইট হাউসে গমনের পথে পেনসিলভেনিয়া এভিন্যুতে অনুষ্ঠিত প্যারেড এবার থাকছে না। এর পরিবর্তে নতুন প্রেসিডেন্ট জোসেফ বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমালা হ্যারিসকে সামরিক বাহিনীর নেতৃবৃন্দ এস্কট দিয়ে নিয়ে যাবেন অনুষ্ঠান স্থল থেকে হোয়াইট হাউস পর্যন্ত। শপথ গ্রহণের আগের দিন বিকাল সাড়ে ৫টায় লিংকন মেমোরিয়ালের চারপাশে করোনাভাইরাসে নিহত আমেরিকানদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে করা হবে বিশেষ আলোকসজ্জা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর