× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ মার্চ ২০২১, সোমবার

রাজপরিবারের সমালোচনা করায় ৪৩ বছরের জেল থাই নারী আনচানের

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) জানুয়ারি ২০, ২০২১, বুধবার, ১১:৩৬ পূর্বাহ্ন

রাজা, রাজপরিবার ও রাজতন্ত্রকে অবমাননা করার অভিযোগে থাইল্যান্ডে সাবেক সরকারি এক কর্মকর্তা আনচান’কে (৬৩) ৪৩ বছরের জেল দেয়া হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি। এতে আরো বলা হয়, আনচান সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি অডিও ক্লিপ পোস্ট করেছিলেন। এতে রাজা, রাজপরিবার ও রাজতন্ত্রের কড়া সমালোচনা রয়েছে বলে অভিযোগ আছে। এ জন্য তাকে প্রথমে ৮৭ বছরের জেল দেয়া হয়েছিল। কিন্তু আনচান তার অপরাধ স্বীকার করার পর তা অর্ধেক করে ৪৩ বছরের জেল দেয়া হয়েছে। আনচান আদালতে বলেছেন, তিনি শুধু ওই অডিও ফাইল শেয়ার দিয়েছেন। এতে কোন মন্তব্য করেননি।
থাইল্যান্ডে রাজতন্ত্র বিষয়ক কঠোর আইন আছে। এই আইনের অধীনে রাজা, রাজপরিবার বা রাজতন্ত্রের সমালোচনা বা অবমাননা কঠোরভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিশ্বের মধ্যে রাজতন্ত্র বিষয়ে যেসব কঠোর আইন আছে তার মধ্যে থাইল্যান্ড অন্যতম। দেশটিতে বেশ কয়েক মাস ধরে সরকার বিরোধী বিক্ষোভ হয়। সেই বিক্ষোভে দেশের সংবিধান সংশোধনের আহ্বান জানানো হয়। রাজতন্ত্রের পরিবর্তন দাবি করে তারা। ফলে গত বছর এই আইনের পর্যালোচনা করে সরকার।
২০১৪ ও ২০১৫ সালের মধ্যে ইউটিউব ও ফেসবুকে ক্লিপিং শেয়ার করার জন্য আনচানের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে,  তার মধ্যে ২৯টি তিনি স্বীকার করেন। বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে তার আইনজীবী এসব কথা বলেছেন। ২০১৪ সালে সেনাপ্রধান প্রায়ুত চান-ওচা ক্ষমতা দখলে নেয়ার পর পরই রাজপরিবার বিষয়ক আইনের অধীনে ১৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। তার মধ্যে আনচান অন্যতম।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর