× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শনিবার

সখীপুরে দুর্বৃত্তদের হামলায় কলেজ ছাত্রের মৃত্যু

বাংলারজমিন

সখীপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি
২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার

টাঙ্গাইলের সখীপুরে রাতের আধাঁরে দুর্বৃত্তদের অতর্কিত হামলায় আশিকুর রহমান রবিন খান (১৮) নামের এক কলেজ ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় সহোদর জমজ ভাই আনিসুর রহমান রনি খান (১৮) ও অনিক (১৫) নামের দুই শিক্ষার্থী আহত হয়। মঙ্গলবার রাত প্রায় ১২টার সময় উপজেলার চতলবাইদ মধ্যে পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। রবিন খান ওই এলাকার প্রবাসী আমিনুর রহমান খানের ছেলে ও সরকারি মুজিব কলেজের এইচএসসি’র প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। হামলাকারীদের চিনতে না পাড়ায় এ ঘটনায় অজ্ঞাত নামে সখীপুর থানায় রবিন খানের চাচা সামছু খান বাদী হয়ে একটি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বাড়ির পাশে একটি বাউল গানের আসর থেকে রবিন খান, সহোদর ভাই রনি খান, খালাতো ভাই অনিক ও খালাতো দুই বোনসহ ৫/৬ জন বাড়ি ফিরতে ছিলো। হাজী বাড়ির মসজিদের সামনে আসলে সংঘবদ্ধ কয়েকজন যুবক রবিন ও রনির চোখে লাইট ধরে। ওদের কেউ একজন বলে ‘না এরা না। অন্য একজন বলে হ এরাই।’ এই কথা বলেই ওদের উপর অতর্কিত ভাবে কিল ও ঘুঁষি চালায় দুর্বৃত্তরা।
অবস্থা খারাপ দেখে অন্যরা দৌঁড়ে বাড়ি গেলেও রবিন খান ও রনি খান দুর্বৃত্তদের হামলায় শিকাড় হয়। এ সময় রনির চিৎকার শুনে এক প্রতিবেশী এগিয়ে এসে দেখে রনিকে কে বা কারা মারধর করছে। প্রতিবেশীর উপস্থিতি দেখে দুর্র্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। রনি তখন জমজ ভাই রবিনকে খোঁজতে থাকে। কিছুক্ষণ পর পরিবারের লোকজন ঘটনা স্থলে এসে দেখে পাশের এক জমিতে মূমুর্ষ অবস্থায় পরে আছে রবিন খান। তাকে সখীপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে বুধবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।
আহত আনিসুর রহমান রনি খান (১৮) কে ভর্তি করে অনিককে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে বাড়ি পাঠানো হয়। এ ঘটনায় জড়িত কাউকে চিহ্নিত করতে পারেনি আহতরা। তবে ওই রাতেই এ ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত বলে সন্দেহ করে তাজমুল ইসলাম (১৮) নামের এক যুবকে আটক করে পুলিশে দেয় স্থানীয়রা। সে উপজেলার ঘেচুয়া প্রবাসী নুরুল ইসলামের ছেলে।
সখীপুর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এ.কে সাইদুল হক ভূঁয়া বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্ত করতে পাঠানো হয়েছে। তবে প্রাথমিক তদন্তে লাশের গায়ে কোন আঘাতে চিহ্ন দেখা যায়নি।  সন্দেহ করে আটক করা যুবককে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর