× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার

নোয়াখালীতে স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীর মৃত্যুদণ্ড পিতামাতার যাবজ্জীবন

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী থেকে
২১ জানুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার

বেগমগঞ্জের নরোত্তমপুর ইউনিয়নের মধ্যম নরোত্তমপুর গ্রামে জমিন রেজিস্ট্রি করে না দেয়ায় শ্বশুর-শাশুড়ির প্ররোচনায় স্বামী হত্যার দায়ে স্ত্রীকে মৃত্যুদণ্ড ও স্ত্রীর পিতামাতাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার জরিমানার আদেশ দিয়েছেন নোয়াখালীর জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ। গতকাল বিকেলে জনাকীর্ণ আদালতে তিনি রায়ের এ আদেশ ঘোষণা করেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, বেগমগঞ্জ উপজেলার মধ্যম নরোত্তমপুর গ্রামের শহীদ উল্যার সাথে একই এলাকার আবুল হোসেনের মেয়ে বিবি কুলসুমের বিয়ের পর তাদের ৩ কন্যা সন্তানের জন্ম হয়। দাম্পত্য জীবনের এক পর্যায়ে স্ত্রী বিবি কুলসুম স্বামীর নিকট ঢাকায় পাঁচতলা বাড়ির ১টি ফ্ল্যাট ও এলাকায় জমিন রেজিস্ট্রি করে দিতে চাপ সৃষ্টি করে। কিন্তু স্বামী শহীদ উল্যা রাজি না হলে বিবি কুলসুমের পিতা আবুল হোসেন ও মাতা লিপি আক্তারের প্ররোচনায় স্ত্রী বিবি কুলসুম ঠাণ্ডা মাথায় ৩-৫-২০১৮ তারিখ সকালে স্বামীর গায়ে গরম তৈল ঢেলে দেয়। প্রতিবেশীরা তাকে প্রথমে নোয়াখালী জেনারেল হাসপতাালে ও পরবর্তীতে ঢাকা বার্ন ইউনিটে ১২-৫-২০১৮ইং তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় বেগমগঞ্জ থানায় মামলা গ্রহণ না করলে আদালতে মামলা হয়। আদালত দীর্ঘ শুনানি ও সাক্ষী নেয়ার পর শহীদ উল্যার স্ত্রী বিবি কুলসুমকে মৃত্যুদণ্ড ও প্ররোচনার দায়ে তার পিতা আবুল হোসেন ও মাতা লিপি বেগমকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন।
মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত বিবি কুলসুম ও তার মাতা লিপি আক্তার পলাতক রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর