× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ মার্চ ২০২১, সোমবার

চৌমুহনীতে বন্ধুদের হাতে খুন কিশোর গ্যাং নেতা

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী থেকে
২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার

বেগমগঞ্জ উপজেলায় চৌমুহনী এগ্রিকালচার ইনস্টিটিউটের সামনে বহুল আলোচিত হাসান হত্যা মামলার ৩নং আসামি কিশোর গ্যাং নেতা মাজহারুল ইসলাম তুর্জয়কে (২১) ছুরি দিয়ে হত্যা করেছে হতভাগ্য যুবকের বন্ধুরা। বুধবার সন্ধ্যা ৬টার দিকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, পূর্বের হত্যাকাণ্ডের জের ধরে সাথের বন্ধুদের নাম পুলিশের কাছে বলে দেয়ায় এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে নিহত কিশোর গ্যাং নেতা দুর্জয়ের পিতা মো. মানিক বাদী হয়ে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় ৬ জনকে আসামি করে ১৫-২০ জনকে অজ্ঞাতনামা দিয়ে একটি খুনের মামলা দায়ের করে। তদন্তকারী ডিবির ওসি সাইফুল ইসলাম নরোত্তমপুর গ্রামের বাদশাহ আলমের পুত্র রবিউল হোসেন রায়হান কে ২১ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
নিহত তুর্জয় চৌমুহনী পৌরসভার উত্তর নাজিরপুর গ্রামের মো. মানিকের ছেলে। স্থানীরা জানান, বিকাল ৫টার দিকে তিন বন্ধুসহ মাজহরুল ইসলাম তুর্জয় চৌমুহনী পৌরসভার মসজিদ এলাকায় হাঁটছিল।
এসময় মোটরসাইকেল যোগে ৩-৪ জন অজ্ঞাত অস্ত্রধারী যুবক তাদের ধাওয়া করে।
অস্ত্রধারীদের ধাওয়ায় অপর তিনজন পার্শ্ববর্তী একটি বাড়ীতে গিয়ে আশ্রয় নিলেও ধাওয়াকারীদের হাতে আটকা পড়ে মাজহারুল ইসলাম তুর্জয়। অস্ত্রধারীরা মাজহারুলকে ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে পালিয়ে যায়। পরে এলাকার লোকজন তুর্জয়কে উদ্ধার করে প্রথমে বেগমগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর