× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ মার্চ ২০২১, সোমবার

একটি দোয়া মাহফিল নানা আলোচনা

প্রথম পাতা

শাহনেওয়াজ বাবলু
২২ জানুয়ারি ২০২১, শুক্রবার

মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক। রণাঙ্গনের একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। যিনি বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি’র চেয়ারম্যান। এই দলটি বিএনপি’র নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক। সম্প্রতি নিজে ও দলের উদ্যোগে বেশ কয়েকটি আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করে আলোচনায় তিনি। সর্বশেষ গত ১৬ই জানুয়ারি শনিবার রাজধানীর ধানম-ি এলাকায় একটি চাইনিজ রেস্টুরেন্টে এক দোয়া মাহফিলকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে নানা কৌতূহল। এই দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন সৈয়দ ইবরাহিম। বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা, সাবেক সেনা কর্মকর্তা, সাবেক আমলা, শিক্ষক, আইনজীবী, সাংবাদিকসহ প্রায় তিন শতাধিক মানুষ এতে অংশ নেন।
গত শনিবার অনুষ্ঠিত ওই দোয়া মাহফিলের মূল বিষয়বস্তু ছিল, ‘২০২০-এর জন্য মহান আল্লাহর প্রতি শোকরিয়া ও ২০২১ সালের জন্য মহান আল্লাহর কাছে দোয়া প্রার্থনা।’ তবে আলোচনায় অংশ নিয়ে সব বক্তারা সাম্প্রতিক রাজনৈতিক ইস্যুতে কথা বলেন।
এর আগে গত ৪ঠা ডিসেম্বর দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবে আলোচনা সভার আয়োজন করে বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি। ওই সভা নিয়েও রাজনৈতিক মহলে নানা আলোচনা ছিল। গত ১৪ই ডিসেম্বর জাতীয় প্রেস ক্লাবের অডিটোরিয়ামে বাংলাদেশ পেশাজীবী সংগঠনের উদ্যোগে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। ওইদিন দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টন ও জিরো পয়েন্ট এলাকায় সরকার পতনের দাবিতে রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। ওইদিনের কর্মসূচি নিয়েও রাজনৈতিক মহলে আলোচনা রয়েছে।
গত শনিবারের দোয়া মাহফিলে অংশ নেয়া বেশ কয়েকজনের সঙ্গে কথা হয় মানবজমিনের। তাদের কেউ কেউ বলছেন, বর্তমান প্রেক্ষাপটে ভিন্ন রাজনৈতিক প্ল্যাটফরম খুবই জরুরি। এ অবস্থায় প্রচলতি রাজনৈতিক জোটগুলোর বাইরে নতুন কিছু হতে পারে। এ নিয়ে এখনো প্রকাশ্য কোনো উদ্যোগ নেই। তবে সমমনাদের যোগাযোগের মাধ্যম হতে পারে ছোট ছোট অনুষ্ঠান।
এদিকে সৈয়দ ইবরাহিমের আয়োজনে দোয়া মাহফিলে বিএনপি’র বেশ কয়েকজন নেতা অংশ নেন। তারা এটাকে ¯্রফে দোয়ার অনুষ্ঠান হিসেবেই দেখছেন। যদিও দলের তরফে এ ধরনের কর্মসূচি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।
গত শনিবার মেজর জেনারেল অব. সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমের সভাপতিত্বে দোয়া মাহফিলে আরো উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্যের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, জামায়াতে ইসলামীর সেক্রেটারি জেনারেল মিয়া গোলাম পরওয়ার, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, দলটির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সাবেক প্রতিমন্ত্রী আলমগীর কবির, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান এডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা, এনপিপি’র চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, সাবেক শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী ড. আ ন ম এহসানুল হক মিলন, সাবেক সংসদ সদস্য নিলোফার চৌধুরী মনি, সাবেক সচিব সৈয়দ মারগুব মোর্শেদ, বিমান বাহিনীর সাবেক প্রধান অবসরপ্রাপ্ত এয়ার ভাইস মার্শাল ফখরুল আযম, মেজর জেনারেল অব. ফজলে এলাহী আকবর, মেজর জেনারেল অব. এহতেশাম, রিয়ার এডমিরাল অব. মোস্তাফিজুর রহমান, কল্যাণ পার্টির স্থায়ী কমিটির সদস্য ফোরকান ইবরাহিম, এবি পার্টির সদস্য সচিব মজিবুর রহমান মনজু, মেজর অব. সরোয়ার, ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মাওলানা আব্দুল করিম, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমেদ আব্দুল কাদের, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. আসিফ নজরুল, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অব. শরীফ, কর্নেল অব. হান্নান, সাবেক রাষ্ট্রদূত আসফউদ্দৌলা, কল্যাণ পার্টির স্থায়ী কমিটির সদস্য প্রফেসর ডা. ইকবাল মাহমুদ, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল অব. হাসান নাসির, জামায়াতে ইসলামীর নেতা মাওলানা আব্দুল হালিম, ইতিহাসবিদ নজরুল ইসলাম, মাওলানা মোশারফ হোসেন, বিএসএমএমইউ’র সার্জারি বিভাগের সাবেক ডিন প্রফেসর সাইফুল ইসলাম, জাগপা মহাসচিব সাইফুল ইসলাম, ঢাবি’র অধ্যাপক নুরুল আমিন বেপারীসহ অর্ধশতাধিক অবসরপ্রাপ্ত সামরিক কর্মকর্তা।
সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম মানবজমিনকে বলেন, মহান আল্লাহর সাহায্য ব্যতীত কোনো কাজই করা সম্ভব নয় বলে আমি দৃঢভাবে বিশ্বাস করি। তাই বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টিকে নিয়ে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রচেষ্টায় শুরুতেই আল্লাহর সাহায্য কামনা করে দোয়া মাহফিল করলাম। বাংলাদেশের অগ্রগতি আমাদের মূল লক্ষ্য এবং বাংলাদেশের রাজনীতিতে গুণগত পরিবর্তনের জন্যই আমরা কষ্ট করছি। সকল মহলের সহযোগিতা আমাদের প্রয়োজন। এ জন্য দোয়া মহাফিলের মাধ্যমে সকলের সম্মিলন ঘটিয়েছি।   
রাজনৈতিক মহলের নানামুখী আলোচনার বিষয়ে নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না মানবজমিনকে বলেন, এটা একটা দোয়ার অনুষ্ঠান ছিল। ষড়যন্ত্রের কিছুই নেই। দুঃশাসন থেকে মানুষ যাতে মুক্তি পায় সেজন্য মহান আল্লাহর কাছে দোয়া করা হয়েছে। এ বিষয়ে অপপ্রচার করে মানুষকে যারা বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে তারা তাদের দায়িত্বে করছে।
জানতে চাইলে বিএনপি’র যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল মানবজমিনকে বলেন, কল্যাণ পার্টি ২০ দলীয় জোটের শরিক একটি রাজনৈতিক দল। বিএনপি’র আমন্ত্রণে তারা যেমন সাড়া দেন তেমনি বিএনপি তাদের আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে থাকে। এ কারণেই দোয়া মাহফিলে গিয়েছি। এর বাইরে আর কোনো বিষয় আছে কিনা তা আমার জানা নেই।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর