× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১, শুক্রবার

গরম রসের পাত্রে পড়ে শিশুর মৃত্যু

বাংলারজমিন

ফেনী প্রতিনিধি
২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার

ফেনীর সোনাগাজীতে দাদার কোল থেকে খেজুরের গরম রসের পাত্রে পড়ে গা ঝলসে প্রাণ গেছে আশরাফুল ইসলাম নামে সাত মাসের এক শিশুর। রোববার ভোরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শিশুটি মারা যায়। নিহত আশরাফুল চর দরবেশ ইউনিয়নের দক্ষিণ চর দরবেশ এলাকার মো. মাসুদের ছেলে। এর আগে শনিবার দুপুরে উপজেলার চর দরবেশ ইউনিয়নের দক্ষিণ চর দরবেশ এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। এতে দগ্ধ হয়েছেন শিশুটির দাদা আবুল হোসেন (৬৫)। শিশুটির ফুফা মো. লিটন জানান, শনিবার সকাল থেকে দক্ষিণ চর দরবেশ এলাকার বিভিন্ন গাছির কাছ থেকে রস সংগ্রহ করেন আবুল হোসেন। রস বাড়িতে আনার পর আগুন জ্বালিয়ে বড় পাত্রে রস ঢেলে গরম করে পাটালি গুড় তৈরি করছিলেন আবুল হোসেনের স্ত্রী। এ সময় আবুল হোসেন তার ছেলের কোল থেকে মাস বয়সী নাতি আশরাফুলকে কোলে নিয়ে চুলার পাশে দাঁড়িয়ে কথা বলছিলেন।
হঠাৎ আবুল হোসেনের কোল পথকে শিশুটি গরম রসের পাত্রে পড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে আবুল হোসেন নাতিকে বাঁচাতে দুই হাত গরম রসে ঢুকিয়ে তাকে দ্রুত তুলে মাটিতে রাখেন। ততক্ষণে আশরাফুলের শরীর ও আবুল হোসেনের দুই হাত ঝলসে যায়। পরে বাড়ির লোকজন দ্রুত দুজনকে উদ্ধার করে সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সোনাগাজী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক মো. সাদেকুল করিম বলেন, গরম রসে শিশু আশরাফুলের মাথা ও শ্বাসনালিসহ শরীরের ৩৫ শতাংশ এবং আবুল হোসেনের দুই হাতসহ শরীরের ১০ শতাংশ ঝলসে যায়। দু’জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়। শিশুটি চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা গেছে বলে তিনি জেনেছেন। চর দরবেশ ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য জামশেদ আলম বলেন, পরিবারের পক্ষ থেকে ময়নাতদন্ত ছাড়াই দাফনের জন্য শিশুটির লাশ চাওয়া হয়েছে। সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম বলেন, গরম রসে পড়ে গা ঝলসে যাওয়া শিশুটির চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়েছে বলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা তাকে জানিয়েছেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর