× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ১ মার্চ ২০২১, সোমবার

কুষ্টিয়ার এসপির ক্ষমা প্রার্থনা, আদেশ ১৭ই ফেব্রুয়ারি, প্রিজাইডিং অফিসারকে নিরাপত্তা দেয়ার নির্দেশ

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) জানুয়ারি ২৫, ২০২১, সোমবার, ১:৪৩ অপরাহ্ন

পুলিশকে কথায় নয়, কাজে পটু হতে হবে। পুলিশ যাতে মানুষের বন্ধু হয় সেটা করতে হবে। কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম তানভীর আরাফাত কর্তৃক সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের সঙ্গে দুর্ব্যবহারের অভিযোগের শুনানিকালে এসব কথা বলেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মামনুন রহমান ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে এসময় এসপি হাজির ছিলেন। তিনি নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

এসময় আদালত বলেন, সমাজকে শান্তিপূর্ণ অবস্থানে নিয়ে যেতে হবে। আইনের শাসন, বিচার ব্যবস্থা একা পূর্নাঙ্গতা পায় না। রাষ্ট্রের সব অঙ্গ এক সঙ্গে কাজ করতে হবে।
জুডিশিয়ারির মর্যাদা রক্ষা করা সবার দায়িত্ব।
শুনানিকালে এসপি তানভীরের পক্ষে সিনিয়র আইনজীবী মনসুরুল হক চৌধুরী ভার্চুয়ালি সংযুক্ত হন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এসপি এস এম তানভীর আরাফাত হাইকোর্টে উপস্থিত হন। সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে আদালতে শুনানি শুরু হয়।

শুনানি শেষে আদালত এ ব্যাপারে আদেশের জন্য ১৭ই ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য্য করেন। প্রিজাইডিং অফিসার এবং তার পরিবারের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার নির্দেশ দেন হাইকোর্ট।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Azizul Dulal
২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ৮:২০

পুলিশ নিয়ে মতামত! ঘৃণা হয়।

Nurun Nabi
২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ৮:১১

How soon this powerful police officer will be promoted to DIG of police ? Home Minister can tell only.

Khokon
২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ৩:০০

Justice is justice, we want to see, how justice will be done by judge ? একজন প্রশাসনিক কর্মকর্তা অন্য একজন কর্মকর্তাকে চিনতে পারেন নাই বলে বেয়াদব করেছেন, যা স্বীকার করেছে। একজন কর্মকর্তা যদি অন্য কর্মকর্তাকে চিনতে না পারেন তার ডিউটির সময়, তাহলে বুঝা যায় সে ছিল নেশা গ্রস্থ। তার প্রশাসনিক পদ থেকে তো নিজেরই ইস্তফা দেওয়া উচিত।

Faruque Ahmed
২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ৩:৪৭

ডাক্তার আসার আগেই রোগী মারা গিয়েছিলেন, same

M Eliash Malik
২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ১:৪০

এই সব দুর্বিনীত public servant এর কারণে দেশে সরকার আর জীবন বাজি ধরে কঠিন পরিশ্রমকারী পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হচ্ছে প্রতি নিয়ত। ক্ষমা পেতে পেতে এদের দুশসাহস বেড়েই চলেছে। শাস্তি না পাবার সংস্কৃতি বন্ধ হওয়া দরকার। মাননীয় হাই কোর্ট বিষয়টি বিবেচনা করতে পারেন।

Arafath Suzon Ahmed
২৫ জানুয়ারি ২০২১, সোমবার, ১:২৮

Why not you give three options to the honourable Judge as follows; 1- Stay quiet 2-Don’t ever think to call me here in the court 3-I will send all of them to Pakistan along with their court!

অন্যান্য খবর