× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতা
ঢাকা, ৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার

দশমিনায় ফুল দেয়া নিয়ে সংঘর্ষ, বিএনপি নেতা গ্রেপ্তার

বাংলারজমিন

দশমিনা (পটুয়াখালী) সংবাদদাতা
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, সোমবার

ককটেল বিস্ফোরণ ও ককটেল উদ্ধারের ঘটনায় দশমিনা উপজেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও  উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান ফখরুজ্জামান বাদলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।    
দশমিনা থানা ও স্থানীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে,  শনিবার গভীর রাতে ২১শে ফেব্রুয়ারির প্রথম প্রহরে দশমিনা মডেল সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে শহীদ বেদিতে ফুলের তোড়া দিতে গিয়ে পুলিশের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন বিএনপি নেতারা। এ সময় পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের লাঠিপেটা করে ধাওয়া দিলে তারা দৌড়ে ছত্রভঙ্গ হয়ে যান। দশমিনা উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আব্দুল আলীম তালুকদার দাবি করেছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা স্লোগান দিয়ে শহীদ মিনারের কাছে পৌঁছলে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের লাঠিচার্জ করে ধাওয়া দিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেন। তিনি জানান, পুলিশের লাঠিচার্জে উপজেলা বিএনপি’র সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফখরুজ্জামান বাদল (৫২) এবং বিএনপি নেতা সিকদার এজাজুল (৫১) সহ ১৫ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আমীনুল ইসলাম জানান, পুলিশ ষড়যন্ত্রমূলক ভাবে বিএনপি নেতাকর্মীদেরকে বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করেছেন।
দশমিনা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. জসীম জানান, শহীদ  বেদিতে ফুল দেয়ার নামে বিএনপি নেতাকর্মীরা সরকারবিরোধী বিভিন্ন উস্কানিমূলক স্লোগান দেয় এবং বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর চেষ্টা চালায়। এসময় পুলিশ তাদের মাঠ থেকে সরিয়ে দেয়। পরে তারা নলখোলা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একত্রিত হয়ে একটি ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটায়।
পুলিশ সেখান থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি ও ফখরুজ্জামান বাদলের কাছ থেকে দুটি ককটেল উদ্ধার করে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর