× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

যুক্তরাষ্ট্র-চীন সম্পর্ক ঢেলে সাজানোর আহ্বান চীনের

দেশ বিদেশ

মানবজমিন ডেস্ক
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার

 যুক্তরাষ্ট্রে নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের অধীনে যুক্তরাষ্ট্র-চীন সম্পর্ক নতুন করে ঢেলে সাজানোর আহ্বান জানিয়েছে চীন। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই যুক্তরাষ্ট্রে বাইডেন প্রশাসনের উদ্দেশ্যে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের অধীনে দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে যে ক্ষতি হয়েছে সেখান থেকে বেরিয়ে আসতে, সম্পর্ককে পুনঃস্থাপনে আলোচনার জন্য মুক্ত বেইজিং। এ লক্ষ্যে বাইডেন প্রশাসনকে বেইজিংয়ের সঙ্গে আলোচনা শুরু করার আহ্বান জানান চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এতে আরো বলা হয়েছে, ওয়াং ই হলেন চীনের স্টেট কাউন্সিলর এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ট্রাম্প প্রশাসনের দমননীতি এবং চীনের প্রভাব বিস্তারের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিয়েছিল। সে কারণে চীনের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে। তিনি চীনা পণ্যের ওপর থেকে ট্রাম্প আমলে আরোপিত শুল্ককর প্রত্যাহার করার আহ্বান জানিয়েছেন।
চীনা প্রযুক্তি বিষয়ক খাতের ওপর অহেতুক যেসব দমনপীড়ন চালানো হয়েছিল তা পরিত্যাগ করারও আহ্বান জানান তিনি।
চীনের মৌলিক স্বার্থের প্রতি সম্মান দেখাতে, বেইজিংয়ের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ বন্ধ করতে এবং তাইওয়ানের স্বাধীনতাকামী বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমর্থন দেয়া বন্ধ করতে ওয়াশিংটনের প্রতি আহ্বান জানান ওয়াং ই। তিনি বলেন, কয়েক বছরে কার্যত সব পর্যায়ের দ্বিপক্ষীয় আলোচনা বন্ধ করে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। আমরা যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনে প্রস্তুত। সমস্যা সমাধানে আলোচনার জন্যও প্রস্তুত। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মধ্যে যে ফোনালাপ হয়েছে তাকে ইতিবাচক পদক্ষেপ বলে উল্লেখ করেন ইয়াং ই।
উল্লেখ্য, এই প্রস্তাবগুলো এমন এক সময়ে এলো যখন কয়েক দশকের মধ্যে দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক একেবারে তলানিতে পৌঁছেছে। বাণিজ্য সহ বিভিন্ন ইস্যুতে তাদের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হয়েছে। তার মধ্যে বাণিজ্য বাদেও সিনজিয়াং প্রদেশে মুসলিম সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ, দক্ষিণ চীন সাগরে নিজেদের আধিপত্য বিস্তার, হংকং, তাইওয়ান ইস্যু অন্যতম।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর