× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার
কলকাতা কথকতা

ভাইজানের জনসমাবেশে মানুষের ঢল, আব্বাস বললেন - টাকা করতে আসিনি

কলকাতা কথকতা

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা
(১ মাস আগে) ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২১, মঙ্গলবার, ৯:৫৫ অপরাহ্ন

আব্বাস সিদ্দিকীকে দলীয় সমর্থকরা ভাইজান বলে ডেকে থাকেন। আর মঙ্গলবার বিকেলে ধর্মতলার ওয়াই চ্যানেলে ভাইজানের ডাকা সমাবেশে মানুষের এমন ঢল নামবে গোয়েন্দাদের কাছেও এই খবর ছিল না। তরুণ মুসলমানদের কার্যত মসিহায় পরিণত হয়েছেন ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্টের প্রতিষ্ঠাতা আব্বাস সিদ্দিকী। ধর্মতলার সমাবেশে তরুণদের উপস্থিতি ছিল দেখার মতো। শিয়ালদহ থেকে আসা মিছিলের নেতৃত্ব দেন আব্বাস স্বয়ং। জনসভায় আব্বাস বলেন,  আমি ভোটে টাকা বানাতে আসিনি, সম্পদ বাড়াতে আসিনি, কোনও ভাইপোকে বাঁচানোর তাগিদও আমার নেই। কেন্দ্রের সরকার ও রাজ্যের সরকার যে ভাবে দারিদ্র মুসলিম, দলিত, আদিবাসীদের ওপর অত্যাচার চালাচ্ছে, আমার প্রতিবাদ তাই নিয়ে। বলাই বাহুল্য আব্বাস সিদ্দিকীর আক্রমণের লক্ষ্য ছিলেন ডায়মন্ডহারবার এর সাংসদ অভিষেক বন্দোপাধ্যায়।
এদিন সি বি আই এর এগারো সদস্যের একটি দল অভিষেকের কালীঘাটের বাড়িতে গিয়ে বেআইনি টাকার লেনদেন নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন অভিষেকের স্ত্রী রুজিরা নারুলা বন্দোপাধ্যায়কে। জেরার ঠিক আগে মুখ্যমন্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় অভিষেকের বাড়িতে যান। মিনিটদশেক সময় তিনি অভিষেকের কালীঘাটের বাড়িতে ছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Aminul Amin
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, বুধবার, ১০:৩৮

These are the enemy of Muslim. They favouring bjp they cannot be true Muslim . They are paid agent of bjp . Muslim should united for Momota.

Tapan Kumar mukherje
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার, ১১:৫০

ei sob Muslim ra neta hote eseche .Eto din dharma nie katha hoina ekhon keno??,

Md. Shahid ullah
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১, মঙ্গলবার, ১১:৪৫

দরবারে বরবাদ মুসলিম সমাজ। ইন্ডিয়ান সেকুলার পার্টির নামে মুলত তিনি বিজেপি বিপজ্জনক অবস্থায় আসন ভাগে নেয়ার মোক্ষম সুযোগটা হাতিয়ে নিচ্ছেন। তবে এ দিন দিন নয়। মুসলিম, দলীত আদিবাসিদের অধিকারের কথা বলতে গিয়ে হিন্দুদের উপেক্ষা করছেন। তিনি মুসলিমদের জন্য বিপজ্জনক। মুসলিমরা ইসলাম ছেড়ে “গোলামী তত্ত্বে” এত আগ্রহী কেন? কোরআন বাদ দিয়ে পীরের তারিফ কী জান্নাহ দিবে?

অন্যান্য খবর