× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

সিলেটে মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণ, গণধর্ষণ মুক্তিপণ দাবি

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
১ মার্চ ২০২১, সোমবার

সিলেটের মোগলাবাজারে এক মাদ্রাসাছাত্রীকে জোরপূর্বক অপহরণের পর গণধর্ষণ করেছে নরপশুরা। পরে তাকে মুক্তি দিতে চাওয়া হয় মুক্তিপণ। এ ঘটনায় পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুইজনকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ জানায়- গত ২০শে ফেব্রুয়ারি শহরতলীর মোগলাবাজারের তোরখলা ইসলামিয়া বালিকা মাদ্রাসায় বই আনার জন্য রওনা হয় নবম শ্রেণির এক ছাত্রী। মাদ্রাসার সামনে পৌঁছামাত্র মুহিবুর রহমান নামের এক সিএনজি অটোরিকশাচালক জোরপূর্বক তুলে নিয়ে জালালাবাদ থানাধীন খালপাড়স্থ একটি দোকানের পিছনে নিয়ে তাকে আটকে রাখে। পরে ওই ছাত্রীকে কয়েকজন যুবক জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পালাক্রমে ধর্ষণের একপর্যায়ে ওই ছাত্রী জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। পরে মেয়েকে অপহরণের নাটক সাজিয়ে মাদ্রাসা ছাত্রীর বাবার কাছে মুক্তিপণের জন্য ৩ লাখ টাকা দাবি করে ধর্ষকরা।
এ ঘটনায় নির্যাতিতার স্বজনরা কৌশলে ওই ছাত্রীকে বন্দিদশা থেকে মুক্ত করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওসিসিতে ভর্তি করেন। এ ঘটনায় গত ২৭শে ফেব্রুয়ারি ধর্ষণের শিকার ছাত্রীর পিতা জালালাবাদ থানায় এজাহার দাখিল করেন। পুলিশ মামলা গ্রহণ করে আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করে। শনিবার রাতে পুলিশ মামলার প্রেক্ষিতে বিশ্বনাথের মাতাবপুর গ্রামের চেরাগ আলীর মুহিবুর রহমান ও খালপাড় এলাকার সোনা মিয়ার পুত্র আদিলকে গ্রেপ্তার করেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর