× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২১ এপ্রিল ২০২১, বুধবার

১৫ বছরেও ১টি বিদ্যুতের খুঁটি পায়নি সরাইলের ইউপি চেয়ারম্যান

বাংলারজমিন

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি
১ মার্চ ২০২১, সোমবার

সরাইল সদর ইউনিয়ন পরিষদের ৩ বারের নির্বাচিত চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার। গতকাল উপজেলার মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভায় স্থানীয় পিডিবি’র ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেন। দীর্ঘ ১৫ বছর ঘুরেও তিনি পিডিবি’র কাছ থেকে বিদ্যুতের ১টি খুঁটি নিতে পারেননি। অথচ বর্তমান সরকার সরাইলেই ‘আমার গ্রাম, আমার শহর’ প্রকল্পের মাধ্যমে সর্বত্র বিদ্যুৎ ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্য কাজ করছে। চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার বলেন, সদরের শাহপাড়া এলাকায় একটি বিদ্যুতের খুঁটি খুবই জরুরি। আমি ১৫ বছর আগে থেকে স্থানীয় বিদ্যুতের কর্মকর্তাদের পেছনে ধরনা দিচ্ছি। দেয়-দিচ্ছি বলে আমাকে শুধু ঘুরাচ্ছেন। এক সময় কর্তাব্যক্তি অর্থাৎ নির্বাহী প্রকৌশলীদের কাছেও গিয়েছি।
কোনো কাজ হয়নি। সর্বশেষ বিদ্যুৎ অফিসের লোকজনের দেয়া তথ্য মতে ঠিকাদারের লোক মো. সোহেলের কাছে খুঁটি চেয়েছি। তাও খুঁটি পায়নি। আশ্চর্য হলামÑ আমি একজন চেয়ারম্যান। আমিই ১৫ বছর ঘুরে পায়নি বিদ্যুতের ১টি খুঁটি। ভাবুন তো সাধারণ মানুষকে কেমন সেবা দিচ্ছে সরাইল পিডিবি? আর সাধারণ গ্রাহকদের যে কী অবস্থা! সেটা সহজেই অনুধাবন করা যায়। পরে লোকজনের কাছে শুনতে পায় সোহেল সাহেবরা নাকি ১০-১৫ হাজার টাকা না দিলে খুঁটি দেন না। সরকারের এই খুঁটিগুলো কি গ্রাহকদের জন্য ফ্রি নাকি টাকা দিয়ে ক্রয় করতে হয়? এই বিষয়টি আমাদেরকে নিশ্চিত হতে হবে। ফ্রি-ই যদি হয়ে থাকে তাহলে আমাকে দিচ্ছেন না কেন? নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আরিফুল হক মৃদুলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রফিক উদ্দিন ঠাকুর, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া বেগম, সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মো. নোমান মিয়া, সরাইল থানার দ্বিতীয় কর্মকর্তা এসআই মো. জাকির হোসেন খন্দকার, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার মো. আনোয়ার হোসেন, ৯ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, সাংবাদিক ও শিক্ষক প্রতিনিধিরা। ঠিকাদারের নিয়োগকৃত প্রকল্পের সুপারভাইজার মো. আতিকুজ্জামান সোহেল বলেন, ২০-২৫ দিন আগে চেয়ারম্যান বিদ্যুতের ১টি খুঁটি চেয়েছেন। ঢালাই পোল নিয়ে গিয়ে ফিরে এসেছি। সেখানে স্টিলের পোল দিতে হবে। আমাদের কাছে স্টিলের পোল নেই।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর