× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১২ এপ্রিল ২০২১, সোমবার

নওগাঁয় কুপিয়ে নারীর আঙ্গুল বিচ্ছিন্ন, যুবক আটক

বাংলারজমিন

নওগাঁ প্রতিনিধি
২ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার

নওগাঁয় পরকীয়ার জেরে চাপাতি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে এক নারীর (২৮) হাতের আঙ্গুল শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করেছে এক যুবক। পরে ওই নারীকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শহরের দয়ালের মোড় হাসপাতাল রোডের দি পপুলার ল্যাব অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ঘাতক যুবক নজমুল হোসেন (৪২)কে স্থানীয়রা গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছেন। নজমুল শহরের মাস্টারপাড়া মহল্লার মজিবর রহমানের ছেলে এবং পেশায় একজন রিকশাচালক। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ওই নারী শহরের দয়ালের মোড়ের হাসপাতাল রোড দিয়ে যাচ্ছিলেন। পিছন থেকে নজমুল হোসেন একটি চাপাতি দিয়ে ওই নারীকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। এতে মাথা ও ঘাড়ে গুরুতর জখম হয় এবং ডান হাতের শাহাদত আঙ্গুলটি শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
আটক নজমুল হোসেন বলেন, ওই নারীর স্বামী অনেক আগেই মারা গেছে। ২০১৭ সাল এক পর্যায়ে তার সঙ্গে পরিচয় হয়। মাঝে-মধ্যে তার সঙ্গে দেখা-সাক্ষাৎ হতো। ওই নারী আমাকে কবিরাজি ওষুধ দিয়ে পাগল করতে চেয়েছিল। কিন্তু ওষুধে কাজ হচ্ছিল না। এখন আমার কাছ থেকে দূরে সরে যাচ্ছে। আমাকে আর গুরুত্ব দিচ্ছে না। ক্ষোভের বসে বাড়ি থেকে চাপাতি নিয়ে এসে তাকে কুপিয়েছি। নওগাঁ সদর থানার উপ-পরিদর্শক হাফিজুর রহমান বলেন, ঘটনার পর স্থানীয়রা নজমুল হোসেনকে আটক করে রেখেছিল। সংবাদ পাওয়ার পর ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর