× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৭ এপ্রিল ২০২১, শনিবার

অ্যাপে বিভ্রাট, প্রথম দিনের টিকাকরণে তাও উৎসাহ ছিল দেখার মতো

ভারত

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা
(১ মাস আগে) মার্চ ২, ২০২১, মঙ্গলবার, ৯:২২ পূর্বাহ্ন

নাম রেজেস্ট্রি করার কোউইন পোর্টালের অনেক সমস্যা ছিল। ওটিপি আসতে দেরি হয়েছে, অনেকক্ষেত্রে ওটিপি  আসেই নি, তাও সোনালি ভারতের ভ্যাকসিন গ্রহণের প্রথম দিনে রুপালি রেখা দেখা গেছে। দেশের বিভিন্ন ভ্যাকসিন সেন্টারে প্রবীণদের লাইন, ভ্যাকসিন নেয়ার উৎসাহ এই সব ত্রুটিবিচ্যুতিকে হার মানিয়ে দিয়েছে। গোটা দেশে প্রথম দিনই ২৫ লাখ মানুষ নাম নথিভুক্ত করেছেন। টিকা নিয়েছেন ৯৭ বছররে বৃদ্ধ থেকে শুরু করে কোমরবিডিটি থাকা ৪৬ বছরের তরুণও।  প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ছিলেন দেশের প্রবীণদের মধ্যে প্রথম ভ্যাকসিন গ্রহীতা। মোদি ছাড়াও এদিন ভ্যাকসিন নেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, বিদেশ মন্ত্রী এস জয়শঙ্কর, বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার, ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক। মোদি ভ্যাকসিন নেয়ার পর বলেন, সুঁচ ফোটানোটা পর্যন্ত টের পাইনি। তিনি দেশের মানুষকে আহ্বান জানান ভ্যাকসিন নিয়ে করোনাকে হারানোর।
কলকাতায় বহু জায়গায় ভ্যাকসিন এসে পৌঁছালেও ভ্যাকসিন দেয়ার টি সিরিঞ্জ এসে পৌঁছায়নি। ফলে, এই সব কেন্দ্রে ভ্যাকসিন প্রদান বন্ধ রাখতে হয়। রাজ্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বিষয়টি জানিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রণালয়কে। সেন্টারে সেন্টারে ভ্যাকসিন নেয়ার লম্বা লাইন, উৎসবের মেজাজ যেন করোনা জয়ের দিকটিকেই সূচিত করছিলো। ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজটি নেয়ার ২৮ থেকে ৪২ দিনের মধ্যে দ্বিতীয় ডোজ নিতে হয়। ভারতে কোভিড যোদ্ধাদের অনেকেরই এই দ্বিতীয় ডোজ নেয়া শুরু হল সোমবারে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর