× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার
ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদন

দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনীতিতে ‘বুল কেস’ হয়ে উঠছে বাংলাদেশ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) মার্চ ৪, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন

দক্ষিণ এশিয়ার অর্থনীতিতে ‘বুল কেস’ হয়ে উঠছে বাংলাদেশ। গত সপ্তাহে বাংলাদেশের অর্থনীতি বড় এক সফলতা অর্জন করেছে। জাতিসংঘের কমিটি ফর ডেভেলপমেন্ট পলিসি সুপারিশ করেছে যে, বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে গ্রাজুয়েট করে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছে। স্বাধীন হওয়ার প্রায় ৫০ বছর পর্যন্ত এ দেশটি ছিল স্বল্পোন্নত। যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী দ্য ওয়াল স্ট্রিট জার্নালে প্রকাশিত ‘বাংলাদেশ ইজ বিকামিং সাউথ এশিয়াজ ইকোনমিক বুল কেস’ শীর্ষক প্রতিবেদনে এসব কথা বলা হয়েছে। এতে আরো বলা হয়েছে, দক্ষিণ এশিয়ায় চীন, ভিয়েতনাম এবং দক্ষিণ কোরিয়ায় বিভিন্ন পর্যায়ে যে সফল উন্নয়ন মডেল দেখা গেছে, বাংলাদেশ তাদের খুব কাছাকাছি। অনেক দেশ খুব কম আয়ের স্তর থেকে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছে। এটা সম্ভব হয়েছে রপ্তানিমুখী উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে।
এটাকেই আধুনিক সময়ে উত্তম রেকর্ড হিসেবে দেখা হয়। গত এক দশকে বাংলাদেশের রপ্তানি ডলারের হিসাবে উন্নীত হয়েছে শতকরা প্রায় ৮০ ভাগে। এর চালিকাশক্তি হিসেবে রয়েছে ক্রমবিকাশমান গার্মেন্ট শিল্প। যখন ভারত ও পাকিস্তানের রপ্তানি প্রকৃতপক্ষে কমে গেছে, তখন বাংলাদেশের রপ্তানিতে তা হয়নি। সম্প্রতি ২০১১ সালের হিসাব অনুযায়ী বাংলাদেশের গড় মাথাপিছু জাতীয় প্রবৃদ্ধি মার্কিন ডলারের হিসাবে ভারতের প্রবৃদ্ধির শতকরা ৪০ ভাগ নিচে। এর কারণ, গত বছর ভারতে করোনা মহামারি। তবে আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিল আশা করে, এই ফারাক কম-বেশি হতে পারে।


এছাড়া বাংলাদেশের উন্নয়ন মডেলে আরো কিছু ফ্যাক্টর আছে। তার মধ্যে অন্যতম হলো এখানকার জনসংখ্যার বড় অংশ তরুণ-যুবক। মজুরির দিক দিয়ে প্রতিযোগিতা অব্যাহত আছে এখানে। দক্ষিণ এশিয়ার অন্য স্থানের তুলনায় এখানে আছে শক্তিশালী এবং ক্রমবর্ধমান নারী শ্রমিক। তারা অর্থনীতিতে অংশগ্রহণ করছেন। তা সত্ত্বেও কিছু অর্থপূর্ণ বাধা রয়েছে। এক হলো, ভিয়েতনাম বা কম্বোডিয়ার চেয়ে বাংলাদেশি রপ্তানি প্রবৃদ্ধি কম। গত ১০ বছরে ভিয়েতনাম বা কম্বোডিয়ায় রপ্তানি যথাক্রমে তিনগুণ এবং দ্বিগুণের বেশি হয়েছে। ২০০০-এর দশকে ভারতের রপ্তানি ফুলেফেঁপে ওঠে। তারপরই স্থবির হয়ে পড়ে। ফলে ভারতের অর্থনীতির যে উর্ধ্বমুখী প্রবণতা তার নিশ্চিত হয়নি।
বাংলাদেশের পরবর্তী পদক্ষেপ হবে উচ্চ মুল্যের ম্যানুফ্যাকচারিং এবং তা রপ্তানির দিকে অগ্রসর হওয়া, যেমনটা করছে ভিয়েতনাম। বাংলাদেশের রপ্তানি শিল্প এখনও ব্যাপকভাবে গার্মেন্ট শিল্পভিত্তিক। হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির গ্রোথ ল্যাব বাংলাদেশের অর্থনৈতিক জটিলতার (কমপ্লেক্সিটি) দিক দিয়ে ১৩৩টি দেশের মধ্যে ১০৮ নম্বরে রেখেছে। ১৯৯৫ সালে বাংলাদেশ যে অবস্থানে ছিল এই অবস্থান বাস্তবে তার নিচে।
এশিয়ার বড় বড় বাণিজ্যিক ব্লকের বাইরে ভারতের মতো নিজেকে দেখতে পাচ্ছে বাংলাদেশ। এ দেশটি এসোসিয়েশন অব সাউথইস্ট এসিয়ান নেশনস (আসিয়ান)-এর সদস্য নয়। অথবা রিজিওনাল কমপ্রিহেনসিভ ইকোনমিক পার্টনারশিপেরও সদস্য নয়। কমপ্রিহেনসিভ অ্যান্ড প্রোগ্রেসিভ ট্রান্স-প্যাসিফিক পার্টনারশিপেরও সদস্য নয়। বাংলাদেশকে তার উৎপাদন রপ্তানি বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে দিতে প্রয়োজন আন্তঃএশিয়ান সরবরাহ চেইনের সঙ্গে বৃহত্তর অংশগ্রহণ। একই সঙ্গে এটা করতে তাকে তার পূর্ব দিকের প্রতিবেশীদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অর্থনৈতিক সম্পর্ক গড়ে তুলতে হবে।
সতর্কীকরণকে পাশে রেখে বলতে হয়, বাংলাদেশ নিম্ন আয়ের দেশ থেকে বেরিয়ে আসার অর্থ হলো সামনে আরো অগ্রগতি করবে এর লক্ষণ পাওয়া যাচ্ছে। একই সঙ্গে উন্নয়নের অনেক ভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণের মাধ্যমে অন্য দক্ষিণ এশিয়ার প্রতিবেশীদের চেয়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
রাশেদুল আলম
৬ মার্চ ২০২১, শনিবার, ৪:০১

আমাদের মাঝে নিজেদের কে পরিবর্তন করতে হবে, নেগেটিভ চিন্তাকে মনথেকে মুছে ফেলতে হবে, আমরা পারবো এটা মানের মাঝে ধারন করতে হবে,

Mdmostafa Jamal
৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার, ৬:১৪

আমলাতন্ত্রের কারণে পেরাইভেট সেকটর আগাতে পারছ্রনা।

Saikat Adikaree
৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার, ৪:৪১

Bangladesh will be a superbly developed country in 20 more years. I don't know why people still want to have improved relationship with former Soviet block countries. Their socialist system failed. Soviet union is now many countries and each of them are racing with others to be the worst country in the world... We need to be pure capitalist country. We need to reward hard work, not give free everything to people who want that. We help and feed the poor but teach then how to earn and feed themselves... Let's NOT go back to failed socialist system which is now rejected by the countries where the idea flourished once upon a time. Am I wrong???

মোঃ শহিদুল
৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার, ৩:৫৭

আমার প্রত্যাশা আমার সোনার বাংলাদেশকে,আগামী দশকের মধ্যে একটি উন্নত দেশ হিসেবে দেখতে চাই।আমার দেশ সকল দিক দিয়ে স্বাবলম্বী হোক এটাই সবার চাওয়া।যাতে অন্যান্ন দেশের লোক আমাদের দেশে কাজ করার জন্য আসে।I want a develop country. at any cost.

Prabir roy
৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার, ২:৩৩

বাংলাদেশ সব সময় চ্যালেন্জ নিতে পারে।

Md. ALAMGIR HOSSI
৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:৪৩

Why Bangladesh indifference to stae wone industrialization. ? Why largely depend on tax, vat collection culture.state have land and plenty of labor higher educated people . I think the state should be take responsibility to its own soulder not on only PVT sector .

মো: আব্দুল আজিজ
৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:৩৫

বাংলাদেশ মধ্য আয়ের পরিনত হচ্ছে অব্যশই সুসংবাদ। তবে সুষম উন্নয়নের বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে।

MD. NURUZZAMAN
৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার, ১০:৪২

Bangladesh is in the right direction and have the potential further growth

মোঃ আব্দুল লতিফ
৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৯:৩৮

ইনশাআল্লাহ আগামী দশকে বাংলাদেশ উন্নত দেশের কাতারে চলে যাবে

Kazi emam
৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৯:৩৩

বাংলাদেশের জনগণ হিসেবে আমরা আনন্দিত।

গাজী আনোয়ারুল হক
৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:৪২

বাংলাদেশের জনগনকে দক্ষ করে গড়ে তুলতে কারিগরি শিক্ষার উপর গুরুত্ব দিতে হবে। সাবেক সোভিয়েত ব্লক মধ্য এশিয়ার দেশ সমুহের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্কের উন্নয়নের জন্য গুরুত্ব দিতে হবে। দেশে উৎপাদিত কাচামাল পাট, চা, চামড়া ও চিনি শিল্পের আধুনিকতার জন্য প্রকল্প গ্রহন করতে হবে। অর্থ পাচার রোধে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নিতে হবে। আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য উদ্যোগ নিতে হবে।

Md.Iqbal Hossain mia
৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৭:৫৪

We need centrally control of all kinds of Export.and foreign currency.

AMIR
৪ মার্চ ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৫:৫৯

অন্য দক্ষিণ এশিয়ার প্রতিবেশীদের চেয়ে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ। -------তাই যেন হয়!

অন্যান্য খবর