× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার

সংক্রমণ কমছে না

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় নতুন করে সংক্রমণ তার আগের দিনের চেয়েও বেড়েছে। গত কয়েকদিন ধরে করোনা শনাক্তের হার ঊর্ধ্বমুখী। নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছেন ৬১৯ জন। এ সংখ্যা এক মাসের বেশি সময়ের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর থেকে বেশি শনাক্ত ছিল গত ২০শে জানুয়ারি, ৬৫৬ জন। আগের দিন দেশে শনাক্ত হয়েছিলেন ৬১৪ জন। এখন পর্যন্ত দেশে মোট ৫ লাখ ৪৮ হাজার ৫৪৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এরমধ্যে ৮ হাজার ৪৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।
গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরো ৭ জনের মৃত্যু হয়। তারা প্রত্যেকেই ছিলেন ষাটোর্ধ্ব। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়। গতকাল স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

বিশ্লেষণে দেখা যায়, ১লা মার্চ দেশে হঠাৎ করে করোনা শনাক্ত বেড়ে যায়। ওইদিন শনাক্ত হয় ৫৮৫ জন। শনাক্তের হার ছিল ৪ দশমিক ৩১ শতাংশ। ২রা মার্চ ছিল শনাক্তের হার ৩ দশমিক ৩৬ শতাংশ, ৩রা মার্চ করোনা রোগী শনাক্তের হার ছিল ৩ দশমিক ৭৪ শতাংশ।

২০১৯ সালের ৩১শে ডিসেম্বর চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। গত বছরের ৮ই মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের ঘোষণা আসে। দেশে প্রথম করোনায় সংক্রমিত ব্যক্তির মৃত্যু হয় ১৮ই মার্চ। দেশে সংক্রমণ শুরুর দিকে রোগী শনাক্তের হার কম ছিল। গত মে মাসের মাঝামাঝি থেকে সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। মে মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে আগস্টের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত রোগী শনাক্তের হার ২০ শতাংশের উপরে ছিল। এরপর থেকে নতুন রোগীর পাশাপাশি শনাক্তের হারও কমতে শুরু করেছিল। মাস দুয়েক সংক্রমণ নিম্নমুখী থাকার পর গত নভেম্বরের শুরুর দিক থেকে নতুন রোগী ও শনাক্তের হারে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা শুরু হয়। তবে ডিসেম্বর থেকে সংক্রমণ আবার কমতে শুরু করে। কিন্তু গত কয়েকদিন শনাক্তের হার আবার বাড়তির দিকে। করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে গত ২৭শে জানুয়ারি দেশে টিকাদান কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়। ৭ই ফেব্রুয়ারি থেকে দেশে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরু হয় দেশে।

নিবন্ধন পৌনে ৪৮ লাখ, টিকাগ্রহীতা প্রায় ৩৬ লাখ: সারা দেশে গণটিকাদান কর্মসূচি শুরুর ২২তম দিনে গতকাল ভ্যাকসিন নিয়েছেন ১ লাখ ২১ হাজার ১০ জন। টিকা নেয়ার সংখ্যা আবারো অল্প অল্প করে বাড়ছে। আগের দিনের চেয়ে গতকাল ২ হাজারের কিছু বেশি মানুষ টিকা নিয়েছেন। এর মধ্যে ঢাকায় নিয়েছেন ২৪ হাজার ৮০৯ জন। এ পর্যন্ত দেশে মোট টিকা নিয়েছেন ৩৫ লাখ ৮১ হাজার ১৬৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২২ লাখ ৯৪ হাজার ৬৯ জন এবং নারী ১২ লাখ ৮৭ হাজার ১০০ জন। টিকা নেয়ার পর সামান্য পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হয়েছে মোট ৮০৭ জনের। অন্যদিকে গতকাল বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত টিকা নিতে অনলাইনে মোট নিবন্ধন করেছেন ৪৭ লাখ ৭০ হাজার ৯৫৩ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এমআইএস’র গতকালের পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, ঢাকা মহানগর ব্যতীত ঢাকা বিভাগের জেলাগুলোতে টিকা নিয়েছেন ১৭ হাজার ৮৩৫ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ৪ হাজার ৫৯৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ২০ হাজার ৪০৪ জন, রাজশাহী বিভাগে ১১ হাজার ৬৭৫ জন, রংপুর বিভাগে ১২ হাজার ৫৯১ জন, খুলনা বিভাগে ১৯ হাজার ৯১২ জন, বরিশাল বিভাগে ৪ হাজার ৪১৮ জন এবং সিলেট বিভাগে টিকা নিয়েছেন ৪ হাজার ৭৬৭ জন।
 

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর