× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৭ এপ্রিল ২০২১, শনিবার

১৫ কোটির জেমিসন ডোবালেন নিউজিল্যান্ডকে

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
৫ মার্চ ২০২১, শুক্রবার

প্রথমবারের মতো আইপিএলের নিলামে নাম দিয়েই সর্বোচ্চ পারিশ্রামিক পাওয়াদের তালিকায় নাম লিখিয়েছেন কাইল জেমিসন। ১৫ কোটি রুপিতে কিউই পেসারকে দলে ভিড়িয়েছে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর। আইপিএলের চতুর্থ সর্বোচ্চ দামি এই ক্রিকেটারের খরুচে বোলিংয়ে অস্ট্রেলিয়ার কাছে টানা দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে হেরেছে নিউজিল্যান্ড। শুক্রবার কিউইদের ৫০ রানে হারিয়ে পাঁচ ম্যাচের সিরিজে ২-২ এ সমতা ফিরিয়েছে অস্ট্রেলিয়া।

ওয়েলিংটনে দুই দিন আগেই হয়েছে রান বন্যা। হঠাৎই চরিত্র বদল ওয়েস্টপ্যাক স্টেডিয়ামের। সময় গড়ানোর সঙ্গে ধীর গতিতে ব্যাটে বল এসেছে। টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৫৬ রান করে অস্ট্রেলিয়া। এর মধ্যে জেমিসনের করা শেষ ওভারেই অজিরা তুলেছে ২৬ রান।
আইপিএলে ১৫ কোটি রুপিতে বিক্রি হওয়া জেমিসনকে শেষ ওভারে চার ছক্কা হাঁকিয়ে ম্যাচের চিত্র বদলে দেন অ্যারন ফিঞ্চ। ওয়েলিংটনের উইকেটের চরিত্র বদলালেও তাতে প্রভাব পড়েনি অজি অধিনায়কের ব্যাটে। তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে ৪৪ বলে করেছিলেন ৬৯ রান। এদিন ফিঞ্চকে আটকাতে পারেনি স্বাগতিক বোলাররা। ওপেনিংয়ে নেমে ৫৫ বলে ৭৯ রানে অপরাজিত থাকেন ফিঞ্চ। অস্ট্রেলিয়ার বাকি সাত ব্যাটসম্যান মিলে করেছেন ৭৪ রান। বাকি ৩ রান এসেছে অতিরিক্ত থেকে। টানা দুই ফিফটিতে ফিঞ্চ ছাড়িয়ে গেছে ডেভিড ওয়ার্নারকে (২ হাজার ২৬৫ রান)। টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ রানসংগ্রাহক এখন ফিঞ্চ (২ হাজার ৩১০ রান)। ৩২ রানে ৩ উইকেট নিয়ে নিউজিল্যান্ডের সেরা বোলার ইশ সোধি। জেমিসনের অফ ফর্ম অব্যাহত রয়েছে। আগের ম্যচে ৩৮ রান দিয়ে ছিলেন উইকেটশূন্য। চতুর্থ টি-টোয়েন্টিতে ৪ ওভারে ৪৯ দিয়ে সাফল্যের মুখ দেখেননি তিনি।

টি-টোয়েন্টিতে ১৫৭ বড় লক্ষ্য না হলেও ধীরগতির উইকেটে এটাই পাহাড়সম। জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে পাওয়ার প্লে কাজে লাগাতে পারেনি কিউইরা। ৬ ওভারে করতে পারে মাত্র ২৫/১ রান। সেখান থেকে আর ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি নিউজিল্যান্ড। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ৭ বল বাকি থাকতেই ১০৬ রানে অলআউট স্বাগতিকরা। বোলিং ব্যর্থতা ব্যাট হাতে কিছুটা হলেও পুষিয়ে দেয়ার চেষ্টা করেছেন জেমিসন। তার ১৮ বলে ৩০ রানই নিউজিল্যান্ড ইনিংসের সর্বোচ্চ। অজি পেসার কেন রিচার্ডসন নেন ৩ উইকেট। সফরকারীদের তিন স্পিনারই দারুণ সফলতা দেখিয়েছেন। অ্যাস্টন আগার, অ্যাডাম জাম্পার মতো ২টি উইকেট গ্লেন ম্যাক্সওয়েলেরও।

প্রথম দুই ম্যাচ হারের পর টানা দুই জয়ে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রেখেছে অস্ট্রেলিয়া। আগামী রোববার সিরিজ নির্ধারণী পঞ্চম টি-টোয়েন্টিও হবে ওয়েলিংটনে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর