× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার

সিদ্ধিরগঞ্জে ব্যবসায়ীর ৩৮ লাখ টাকা লুট

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ থেকে
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে ডিবি পরিচয়ে এক স্বর্ণ ব্যবসায়ীর কাছ থেকে ৩৮ লাখ টাকা লুটে নেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় মামলা করলেও পুলিশ পুরো ঘটনাটি রহস্যজনকভাবে ধামাচাপা দিয়ে রাখে। ফলে গত ২০শে ফেব্রুয়ারি ঘটনাটি ঘটলেও গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়নি গত ১৪ দিনেও। এদিকে লুণ্ঠিত টাকা উদ্ধার এবং ঘটনার সঙ্গে জড়িত কাউকে গ্রেপ্তার করতে না পারায় পুলিশের ভূমিকা নিয়ে চরম ক্ষোভ ও প্রশ্ন তুলেছেন ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী পরিতোষ চন্দ্র ধর (৫০)।
তিনি জানান, গত ২০শে ফেব্রুয়ারি তিনি তার শ্যালক জীবন ধর (২৮) ও ভায়রা শিলীপ কুমার ধর (৫৩) পার্টনারশিপে চট্টগ্রামের হাটহাজারী দারুস সালাম মার্কেটে রত্নশোভা শিল্পালয় নামে জুয়েলারি ব্যবসা করে আসছেন। ২০শে ফেব্রুয়ারি ব্যবসায়িক কাজে তিনি ঢাকায় আসেন। এবং ঢাকার তাঁতী বাজারস্থ রিজভী জুয়েলার্সে ব্যবসার ৬০ ভরি স্বর্ণ বিক্রির ৩৮ লাখ টাকা কালেকশন করেন। টাকাগুলোর মধ্যে ৩০ লাখ টাকা কালো রংয়ের একটি কাঁধ ব্যাগে এবং ৮ লাখ টাকা একটি লাল শপিং ব্যাগে নিয়ে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে যাওয়ার জন্য বেলা ৩টা ৫০ মিনিটে ঢাকার সায়েদাবাদ জনতার মোড়স্থ খাদিজা ভিআইপি সার্ভিসের এসি বাসে ওঠেন। বাস নাম্বার ঢাকা-মেট্রো-ব-১৫-২১০০।
বিকাল ৪টা ৩০ মিনিটে বাসটি নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের কাঁচপুর ব্রিজের পশ্চিম ঢালে পৌঁছালে অজ্ঞাত ৪ জন ব্যক্তি দুটি মোটারসাইকেল যোগে বাসটির গতিরোধ করে। এবং নিজেদের ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে বাসটি থামানো জন্য সিগন্যাল দেয়। ড্রাইভার বাসটি থামায়। এরপর ৩০ থেকে ৪০ বছর বয়সী তিনজন লোক বাসে উঠে এবং আমার কাছে এসে বলে ব্যাগটি কোথায়? তখন আমি তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তাদের দুইজনের হাতে ২টি পিস্তল ও আইডি কার্ড বের করে নিজেদের ডিবির লোক পরিচয় দেয়। তাদের একজনের পরনে কালো রংয়ের ফুলহাতা শার্ট, অপরজনের পরনে অ্যাশ কালার টি-শার্ট। আরেকজন ড্রাইভারের কাছাকাছি ছিল। ডিবি পরিচয়ের ওই ব্যক্তিরা আমার দুটি টাকার ব্যাগ তাদের হাতে নিয়ে বলে ‘তুই হুন্ডি ব্যবসা করিস, তোকে আমাদের সঙ্গে থানায় যেতে হবে’। তারা আমাকে বাস থেকে নামিয়ে বাসের ড্রাইভারকে বাস নিয়ে চলে যেতে বলে। বাসটি চলে যাওয়ার পর তারা আমার টাকার ব্যাগ দুটি নিয়ে আমাকে ব্রিজের ঢালে ফেলে দিয়ে দ্রুত মোটরসাইকেল যোগে চিটাগাং রোডের দিতে চলে যায়। পরে আমি মোবাইল ফোনে বিষয়টি আমার ব্যবসায়িক পার্টনারসহ আত্মীয়-স্বজনদের জানাই। তাদের পরামর্শে ২৩শে ফেব্রুয়ারি থানায় মামলা দায়ের করি।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) শরিফ আহমেদ জানান, আসামিদের শনাক্তের চেষ্টা চলছে। এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ওসি মশিউর রহমান জানান, এ ঘটনায় কোনো আপডেট নাই।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর