× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ১৩ এপ্রিল ২০২১, মঙ্গলবার

কৃষকের স্বপ্ন পুড়িয়ে দিলো দুর্বৃত্তরা

বাংলারজমিন

সাদুল্লাপুর (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার

প্রান্তিক কৃষক মাজহারুল সরকার। নিজের ঘরের চালের ভাত খাবেন, এমন আশা নিয়ে ৫১ শতক জমিতে রোপণ করেছিলেন বোরো ধানের চারা। কিন্তু বিধি বাম! রাতের আঁধারে কারা যেন ক্ষতিকারক কীটনাশক ছিটিয়ে ধানগাছগুলো পুড়িয়ে ফেলেছে। গতকাল দুপুরে সাদুল্লাপুর উপজেলার ফরিদপুর ইউনিয়নের উত্তর ফরিদপুর গ্রামে গিয়ে এমনটি দেখা যায়। এ ঘটনায় দুশ্চিন্তায় পড়েছেন মাজহারুল।
জানা গেছে, ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক মাজহারুল সরকার উত্তর ফরিদপুর গ্রামের মজনু সরকারের ছেলে। তিনি ৫১ শতক জমিতে বোরো ধানের চারা রোপণ করেছিলেন। এ ফসল ঘরে তুলে নিজ পরিবারের খাদ্য চাহিদা মেটাবেন। এমন বুকভরা আশা নিয়ে আত্মীয়-স্বজনদের কাছ থেকে ঋণ নিয়ে বোরো ধান আবাদ করেন।
মাসখানেক আগে রোপণ করা ক্ষেতটি সম্প্রতি গাঢ় সবুজে পরিণত হয়েছিল।
এতে দেখা দিয়েছিল বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা। কিন্তু সপ্তাহখানেক আগে রাতের আঁধারে কে বা কারা এই ধান ক্ষেতে ক্ষতিকারক কীটনাশক ছিটিয়ে পুড়িয়ে দেয়। এতে করে প্রায় ৩০-৩৫ হাজার টাকা মূল্যের ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয় তার।
ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক মাজহারুল সরকার বলেন, ধান চাষাবাদে ইতোমধ্যে প্রায় ১০ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। এই টাকা আত্মীয়-স্বজনদের কাছ  থেকে ঋণ নেয়া। রোপণকৃত ৫১ শতক জমি থেকে প্রায় ৩০-৩৫ মণ ধান উৎপাদন হতো। তিনি আরও বলেন, কারা এই ধান ক্ষেত পুড়িয়ে ফেলেছে, তা ধারণা করতে পারছি। এ ব্যাপারে আমি আইনের আশ্রয় নেব।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Md. Shahid ullah
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার, ৬:০৭

পুলিশ তদন্ত করে কত ভাবেই না অপরাধীদের খুঁজে বের করে। কিন্তু কৃষি ফসলের ক্ষতিকারক ব্যক্তিদের আজ পর্যন্ত কোন গ্রেপ্তার করা নাই।

অন্যান্য খবর