× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২৩ এপ্রিল ২০২১, শুক্রবার, ১০ রমজান ১৪৪২ হিঃ

বিজেপিতে মিঠুন চক্রবর্তী

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার

সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন ভারতের বর্ষীয়ান অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। আজ পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ মিঠুনের হাতে বিজেপির দলীয় পতাকা তুলে দেন। এরপর পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয় বর্গীয় এবং দিলীপ ঘোষ মিঠুনকে উত্তরীয় পরিয়ে পদ্মশিবিরে স্বাগত জানান। ব্রিগেড মঞ্চে চোখে কালো চশমা এবং ধুতি-পাঞ্জাবি পরে রীতিমতো বাঙালিবাবু সেজে সভামঞ্চে আসেন মিঠুন। যদিও এর আগে মিঠুন চক্রবর্তী পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন। একটা সময় তৃণমূলের রাজ্যসভার সাংসদও হন তিনি। কিন্ত পরবর্তী সময়ে তৃণমূল ত্যাগ করেন তিনি। এরপর দীর্ঘ সময় রাজনীতির ময়দান থেকে দূরে সরে থাকার পর আজ ফের বিজেপিতে যোগ দিলেন তিনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
জোহেব শাহরিয়ার
৯ মার্চ ২০২১, মঙ্গলবার, ১২:০৯

মিঠুন চক্রবর্তীর মতো একজন অভিনেতার বিজেপি'র মতো উগ্রবাদী জঙ্গী সংগঠনে যোগ দেয়ায় বেশ অবাকই হলাম। তার উপর থেকে সব শ্রদ্ধা উঠে গেলো। ভেবেছিলাম তিনি অন্তত একজন অসাম্প্রদায়িক প্রগতিশীল মানুষ। কিন্তু দিন শেষে আমার ধারণা ভুল প্রমাণিত হলো।

আজম জহিরুল ইসলাম
৮ মার্চ ২০২১, সোমবার, ৬:৪৭

মিঠুন চক্রবর্তী একজন শক্তিমান চলচ্চিত্র অভিনেতা। ‘অভি’ শব্দটা বাদ দিলে তিনি একজন রাজনৈতিক নেতাও। তৃণমূল কংগ্রেসের এমপিও ছিলেন তিনি। মমতা ব্যানার্জির ছায়াতলে থেকে দলের জন্য অনেক ত্যাগ স্বীকার করেছেন। এই গুণী নেতা ও অভিনেতা আমাদের সবার ‘আইকন’ এ পরিণত হয়েছেন বুঝতেই পারিনি। শুধু নিজের দেশ ভারতই নয়, তিনি বাংলাদেশেও সমান জনপ্রিয় ও সমাদৃত ব্যক্তি। কিন্তু হঠাৎ করে তিনি পোশাক বদলের মতো দল বদল করে উগ্রবাদী ও সাম্প্রদায়িক দল বিজেপিতে নাম লেখালেন। অর্থাৎ তিনি জল থেকে উঠে এসে আগুনে ঝাপ দিলেন। শুনেছি, মমতার তৃণমূলে থাকাকালীন দুর্নীতির সাথে নিজেকে আষ্টেপৃষ্টে বেঁধে নিয়েছিলেন। তাই নিজের অস্তিত্ব রক্ষার জন্য দল বদল করে শুদ্ধ হতে চেয়েছেন। তা তিনি হতেই পারেন। তাকে বাধা দেয়ার কেউ নেই। কিন্তু তার অভিনীত সিনেমা দেখে, বিশেষ করে তার অভিনীত ফাটাকেস্টোর অভিনয় দেখে যে একটা শ্রদ্ধা তৈরি হয়েছিলো তার প্রতি, সেটা আর রইলো না। শুধু আমার নয়, আমার মতো অনেকেরই তার প্রতি শ্রদ্ধাবোধ উঠে গেছে। তিনি যদি দেশসেবার জন্য ডিগবাজি দিয়ে থাকেন তাহলে ভালো। আর যদি এমপি হয়ে ধনকুবের হওয়ার স্বপ্ন দেখেন, নিজের আমিত্ব জাহির করেন তাহলে ভিন্ন কথা। যদি কেউ জেগে ঘুমায় তাহলে তার ঘুম ভাঙানো যেমন কঠিন। তেমনি আপনাকে উপদেশ বা জ্ঞান বিতরণ করা আমার পক্ষে কঠিন বৈ আর কিছু নয়।

কালাম ফয়েজী
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার, ৮:৪৩

ফাটাক্যাষ্টো তার মর্যাদা হারিয়েছেন। ফাটাকে অভিনয়েই মানায়, রাজনীতিতে না।

তর বাপ
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার, ৫:২২

বিজেপিতে স্বাগতম

samsulislam
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার, ৪:৫৮

মিঠুন তুমি কলকাতা কে বাচাও।

Mohammed Faiz Ahmed
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার, ৫:১৭

লোভ সামলাতে পারলনা বাবু।

Md. Harun al-Rashid
৭ মার্চ ২০২১, রবিবার, ৩:৫৪

'পথহারা পাখি কেঁদে ফিরে একা', তোমার জীবনে শুধু আধারের লেখা।

অন্যান্য খবর