× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী
ঢাকা, ২২ এপ্রিল ২০২১, বৃহস্পতিবার

এক অবিশ্বাস্য ঘটনা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(২ সপ্তাহ আগে) এপ্রিল ৭, ২০২১, বুধবার, ১০:৫৫ পূর্বাহ্ন

অবিশ্বাস্য এক ঘটনা ঘটে গেছে চীনে। এক মায়ের কন্যা হারিয়ে গিয়েছিলেন অনেক আগে। এক পর্যায়ে তিনি একটি ছেলে দত্তক নেন। তাকে বড় করে তোলেন। বিয়ের উপযুক্ত হয় তার ছেলে। তাকে বিয়ে দিতে নিয়ে যান। সেখানেই ঘটে যায় হৃদয় নাড়িয়ে দেয়া ঘটনা। তিনি দেখতে পান তার ছেলে স্ত্রী হিসেবে যে মেয়েকে বিয়ে করতে যাচ্ছে, সে আর কেউ নয়- অনেক বছর আগে হারিয়ে যাওয়া তার সেই মেয়ে।
জন্মের সময়ের চিহ্ন দিয়ে তিনি তাকে শনাক্ত করেন। এরপর মা-মেয়ে আনন্দে হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন। একজন আরেকজনকে জড়িয়ে ধরেন অনেক সময়। বার বার মেয়ে তার মার মুখ দেখছিলেন- মা কি সে রকমই আছেন! মা তার মেয়ের দিকে তাকিয়ে ভাবছিলেন- পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ উপহার তিনি ফিরে পেলেন। ছেলের বিয়ে, তাও নিজের মেয়ের সঙ্গে- এ আনন্দে ওই নারী যেন উদ্বেলিত হয়ে পড়েন। এই বিয়েতে তিনি কোনো আপত্তি করেননি। কারণ, ছেলে বা বর তার আপন ছেলে নয়, দত্তকপুত্র। তাই এ বিয়েতে কোনো সমস্যাই হলো না। জিয়াংসু প্রদেশের সুঝৌউতে এ ঘটনা ঘটেছে গত ৩১শে মার্চ।
টাইমস নাউ নিউজ অনুযায়ী, ওই নারী দীর্ঘ সময় হারিয়ে যাওয়া মেয়েকে খুঁজে বেরিয়েছেন। তাকে কোথাও না পেয়ে শেষ পর্যন্ত ওই ছেলেকে দত্তক নেন। কিন্তু মায়ের মন! তিনি যেখানেই যান, সেখানেই নিজের সেই মেয়েকে খুঁজে ফেরেন। তাই ছেলের বিয়ে দিতে গিয়ে তার নজরে পড়ে কনের হাতের একটি জন্মদাগ। তার সন্দেহ হয়। তার মেয়ের হাতেও তো এমন জন্মদাগ ছিল। তিনি সঙ্গে সঙ্গে কনের পিতামাতার কাছে যান। তাদের কাছে জানতে চান, তারা এই মেয়েকে কোথাও থেকে দত্তক এনেছেন কিনা। এমন প্রশ্নে অনেকদিন পিছনে ফিরে যান তারা। কনের পিতামাতা তাকে জানান, এখন থেকে ২০ বছর আগে রাস্তার পাশে পেয়েছিলেন এই মেয়েটিকে। তারপর তাকে তারাই পালছেন। এ কথা শুনে কান্নায় ভেঙে পড়েন কনে। কারণ, তিনি কোনোদিন কল্পনাও করতে পারেননি তাকে যারা পালছেন, তারা তার আপন পিতামাতা নয়। বরের মা তাকে বর্ণনা দেন নিজের হারিয়ে যাওয়া মেয়ে সম্পর্কে। এমনিতেই বিয়ের অনুষ্ঠান হয় আনন্দের, তার সঙ্গে কনে তার নিজের মাকে ফিরে পেয়ে সেই আনন্দ যেন আরো কয়েকগুন বেড়ে গেল।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
মিলু
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ৭:৪৯

বাকীটুকু ইতিহাস জানেন না বুঝি। উক্ত মহিলার ছেলেও তার আপন ছেলে নন।তাকে তিনি দত্তক নিয়েছেন মেয়েটি হারিয়ে যাওয়ার পর।শেষমেষ উভয়ের আরো আনন্দের সাথে এই মঞ্চেই বিয়ে হয়।

Mohiuddin Palash
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ১২:২৬

মানুষ আল্লাহর দেয়া নিয়ামতকে ভুলে গিয়ে আল্লাহর বিরুদ্ধাচরণ করে। বান্দার প্রতি আল্লাহর নেয়ামতের কথা স্মরণ করে দিয়ে আল্লাহ তায়ালা খুব আক্ষেপের সাথে বলেন, ‘হে মানুষ! কিসে তোমাকে তোমার মহান পালনকর্তা সম্পর্কে বিভ্রান্ত করল? অথচ যিনি তোমাকে সৃষ্টি করেছেন, অতঃপর তোমাকে সুবিন্যস্ত করেছেন এবং সুষম করেছেন।’ (সূরা ইনফিতর : ৬, ৭)

সেজাউল
৭ এপ্রিল ২০২১, বুধবার, ১১:০৮

মহান আল্লাহ তায়ালার কুদরতি এবং অশেষ রহমত।

অন্যান্য খবর