× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার , ৭ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ সফর ১৪৪৩ হিঃ
আশ্রয়ণ প্রকল্পে নয়ছয়

ঘরে ফাটল, আতঙ্কে উপকারভোগীরা

এক্সক্লুসিভ

দিরাই (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি
১৬ জুলাই ২০২১, শুক্রবার

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় মুজিববর্ষ উপলক্ষে আশ্রয়ণ প্রকল্পের কাজে নয়ছয়ের অভিযোগ উঠেছে। কাজ শেষ হতে না হতেই অধিকাংশ ঘরের দেয়াল ও মেঝেতে ফাটল দেখা দিয়েছে। ফলে প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর পেয়েও আতঙ্ক কাটছে না উপকারভোগীদের। ভূমি নেই-ঘর নেই এমন নিঃস্ব মানুষকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের ‘আশ্রয়ণ প্রকল্পের’ মাধ্যমে জমির সঙ্গে স্থায়ী সেমিপাকা ঘরের মালিকানা  দেয়ার  কর্মসূচিতে সারা দেশের  ন্যায় দিরাই উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টি ইউনিয়নে প্রায় ৫৪৬টি ঘর বরাদ্দ দেয়া হয়।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দিরাই উপজেলার রফিনগর, ভাটিপাড়া, চরনারচর, রাজানগর, করিমপুর ও তাড়ল এই ৬ ইউনিয়নে ৫৪৬টি ঘর বরাদ্দ রয়েছে। এর মধ্যে ৪৫০টি ঘরের নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।
সরজমিন দেখা যায়, ডিজাইন বাদ দিয়ে চরনার ইউনিয়নের কামানের পারে ৫৯টি ঘর বাথরুম টয়লেট ছাড়া নির্মাণ করা হয়েছে। এছাড়া এসব ঘরে ইটসলিং ছাড়া ফ্লোর ঢালাই করা হয়েছে, দুর্বল আস্তর করার কারণে অনেক ঘরের আস্তর খসে পড়ছে। একাধিক ঘরে ফাটল দেখা দিয়েছে। কোনো কোনো ঘরের ফ্লোর ভেঙে গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।
চরনারচর গ্রামের কামান পাড়ের  জেলে নিশিকান্ত দাস প্রধানমন্ত্রীর উপহার পেয়েও আতঙ্ক কাটছেনা। নিশিকান্ত দাস জানান, ৪০ বস্তা সিমেন্টের স্থলে ৩৪ বস্তা সিমেন্ট দেয়া হচ্ছে, নিম্নমানের কাজ হওয়ায় চিমটি দিলে আস্তর খসে পড়ছে, এখানে কোনো ঘরে বাথরুম টয়লেট দেয়া হয় নাই, বাইরে বাথরুম টয়লেট দেয়ার কথা থাকলেও এখনো দেয়া হয় নাই।
একইভাবে রফিনগর ইউনিয়নের মেঘনা, বাসাখরচ, মছিমপুর গ্রামে ১১০টি ঘর বাথরুম টয়লেট ছাড়া ঘর নির্মাণ করা হয়েছে বলে জানা গেছে। রাজানগর ইউনিয়নে বেশকিছু ঘরে ফাটল দেখা দেয়ায় আতঙ্কে আছেন উপকারভোগীরা। রাজানগর ইউনিয়নের জাহানপুর গ্রামের মরিয়ম বিবি বলছেন, ঘর পাইয়া খুশি হইছি, এখন দেয়ালে ফাটল দেয়ায় আতঙ্কে আছি।
ঘর নির্মাণ কাজে সংশ্লিষ্ট দিরাই ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার সাইফুল ইসলাম বলছেন, ডিজাইন বাদ দেয়া হয়নি, অনেক উপকারভোগীরা তাদের ঘরে বাথরুম টয়লেট রাখতে চাননি বলে দেয়া হয়নি, এক্ষেত্রে পেছনের দিকে দরজা দেয়া হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর