× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

দক্ষিণ এশিয়ার স্থিতিশীলতায় বাংলাদেশ গুরুত্বপূর্ণ: বৃটেন

এক্সক্লুসিভ

কূটনৈতিক রিপোর্টার
১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, শনিবার

দক্ষিণ এশিয়ার স্থিতিশীলতায় বাংলাদেশকে গুরুত্বপূর্ণ মনে করে বৃটেন। বিশেষ করে ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরকে বিবেচনায় নিয়ে বৃটেনের সমন্বিত পররাষ্ট্র, বাণিজ্য, উন্নয়ন ও নিরাপত্তা নীতিমালা পর্যালোচনার প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের গুরুত্ব অনস্বীকার্য। বৃহস্পতিবার লন্ডনে অনুষ্ঠিত দুই দেশের চতুর্থ কৌশলগত সংলাপে বাংলাদেশের ভূমিকার বিষয়টি বৃটেন তুলে ধরেছে। রোহিঙ্গা সমস্যার টেকসই সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পক্ষকে যুক্ত রেখে দুই পক্ষ পদক্ষেপ চালিয়ে যেতে সম্মত হয়েছে। আফগানিস্তানের চলমান পরিস্থিতি নিয়ে দুই দেশ একে-অপরের অবস্থান নিয়ে কথা বলেছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় শুক্রবার এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, দুই দেশ তাদের ঐতিহাসিক ও বহুমাত্রিক সম্পর্কের প্রতি অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছে। আলোচনায় বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতা পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেন, বাংলাদেশের সুবর্ণজয়ন্তী ও ব্রেক্সিট-পরবর্তী পরিস্থিতি আমাদের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে নতুন মাত্রা যোগ করার সুযোগ এনে দিয়েছে। বিশেষ করে গুরুত্বপূর্ণ আন্তর্জাতিক অংশীদারদের সঙ্গে গভীরতর কৌশলগত যুক্ততার লক্ষ্যে পররাষ্ট্র নীতিতে অগ্রাধিকারের প্রেক্ষাপটে বর্তমানে সুযোগ তৈরি হয়েছে।
বৃটিশ ফরেন অ্যান্ড কমনওয়েলথ অফিসের পার্মানেন্ট আন্ডার সেক্রেটারি ফিলিপ বার্টন ব্যাপকতর দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক আন্তর্জাতিক ইস্যুতে গণতান্ত্রিক দুই দেশের একসঙ্গে কাজ করার বিষয়ে গুরুত্ব আরোপ করেন। বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতির উন্নতির পাশাপাশি গণটিকাদানের সংখ্যা বাড়ার কথা উল্লেখ করে মাসুদ বিন মোমেন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বাংলাদেশের নাগরিকদের বৃটেন ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের অনুরোধ জানান। জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবিলায় দুই দেশের সহযোগিতার কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশে কার্বন নিঃসরণ হ্রাসের প্রয়াসে অর্থায়ন ও প্রযুক্তি সহায়তায় রাজি হয়েছে দুই পক্ষই। বৈঠকে দুই দেশ সন্ত্রাসবাদ দমন, মানবাধিকার সুরক্ষা, বেসামরিক বিমান চলাচল এবং সামুদ্রিক ও অন্তর্জাল নিরাপত্তায় সহযোগিতার অঙ্গীকার পুনর্ব্যক্ত করেছে উভয়ে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর