× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ৬ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১২ সফর ১৪৪৩ হিঃ
আলাপন

তখনকার আর এখনকার এফডিসির পরিবেশে আকাশ পাতাল পার্থক্য -শাকিল খান

বিনোদন

মুজাহিদ সামিউল্লাহ
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার

সোহানুর রহমান সোহানের হাত ধরে ‘আমার ঘর আমার বেহেশত’ ছবির মাধ্যমে রূপালী পর্দায় অভিষেক হয় চিত্রনায়ক শাকিল খানের। প্রথম ছবিতেই বাজিমাত করেন। আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি। পরিচালকরা নতুন নতুন ছবিতে শাকিলকে সুযোগ করে দেন। তার উল্লেখযোগ্য সিনেমার মধ্যে রয়েছে নারীর মন, এ মন তোমাকে দিলাম, আমার মা আমার বেহেশ্ত, বিয়ের ফুল, মা যখন বিচারক, মেঘলা আকাশ, অবুঝ বৌ, প্রাণের প্রিয়তমা, কষ্ট প্রভৃতি। একটা সময় শাকিল খান-পপি জুটি দর্শক হৃদয়ে জায়গা করে নেয়। তুমুল জনপ্রিয় হয় এ জুটি। একসঙ্গে অভিনয় করতে গিয়ে বাস্তব জীবনেও দু’জনার মাঝে ভালোবাসার জন্ম নেয়।
তাদের প্রেম সেই সময় ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়। কারণ এ দু’জন শিল্পীর পেছনে অনেক প্রযোজক অর্থলগ্নি করে রেখেছিলেন। অনেক ব্যবসাসফল ছবির নায়ক যখন তার ক্যারিয়ারের শীর্ষ সময় পার করছিলেন তখনই তার বিরুদ্ধে শিডিউল ফাঁসানো, অভিনয়ের চেয়ে ব্যক্তিগত বিষয়গুলোতে প্রাধান্য দেয়াসহ নানান অভিযোগ ওঠে। পপির সঙ্গে গোপনে ঢাকার বাইরে গিয়ে বিয়ে করে ফেলেছেন- এমনও গুঞ্জন রটেছিল। এসব বিবিধ কারণে ধীরে ধীরে শাকিলের ক্যারিয়ারে ধস নামে। সফল এ নায়ক সিনে জগৎ থেকে হারিয়ে যান। বর্তমানে সেই শাকিল খান কেমন আছেন? কি করছেন? চিরাচরিত হাসি দিয়ে এ নায়ক বলেন, সবার দোয়ায় ভালো আছি। ব্যবসা ও রাজনীতি নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। জনপ্রিয় নায়ক থেকে পুরো দুস্তর রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব হয়ে উঠেছেন। কেমন লাগে আপনার? শাকিল বলেন, আগে ছিলাম রূপালী জগতের বাসিন্দা, এখন রাজনৈতিক জগতের বাসিন্দা। সিনেমা স্বপ্নের মতো কিন্তু রাজনীতি কঠিন জায়গা। অবশ্য এ দুটি জগৎই জনগণের ভালোবাসার। রাজনীতিতে এসে আমি অগ্রজদের অনেক সহযোগিতা পাচ্ছি। সবাই আমাকে উৎসাহ যোগান। আপনি গত সাধারণ নির্বাচনে খুলনা থেকে নির্বাচনে প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন আওয়ামী লীগ থেকে। কিন্তু পার্টি আপনাকে টিকিট দেয়নি? বিষয়টি নিয়ে শাকিল বলেন, পার্টি হয়তো আমাকে ঐ আসনে যোগ্য মনে করেনি- তাই মনোনয়ন দেয়নি। হয়তো আগামীতে আমাকে সুযোগ করে দেবেন। এই প্রত্যাশা রাখি। রাজনীতি করতে গেলে বিপুল জনসংযোগ করতে হয়। আপনি যখন কোনো মিটিং-মিছিলে অংশ নেন নায়ক হিসেবে অতিরিক্ত কোনো সুযোগ পান? শাকিল বলেন, আমাকে সবাই চিত্রনায়ক শাকিল খান হিসেবে ভালোবাসেন। আগে যখন কোথাও গেলে দর্শকরা ঘিরে ধরতেন, ছবি তুলতে আগ্রহী হতেন আজও তা অব্যাহত রয়েছে। রাজনীতির পরিমণ্ডলেও কোথাও জনসংযোগ করতে গেলে অনেকেই বাড়তি আগ্রহ দেখান যা আমাকে খুবই সম্মানিত করে। ইচ্ছে করে না আবার রূপালী পর্দায় ফিরতে? এ নায়ক বলেন, একদমই না। আমি যে সময় সিনেমায় কাজ করতাম তখনকার আর এখনকার এফডিসির পরিবেশে আকাশ পাতাল পার্থক্য। সহশিল্পীদের প্রতি ন্যূনতম শ্রদ্ধা, ভালোবাসা বর্তমানে নেই বললেই চলে। আমাদের সময় শিল্পীরা এক পরিবারভুক্ত হয়ে কাজ করেছি। আজ ভিন্ন দৃশ্যপট। সবাই বিভক্ত। সব কিছুতেই বিভাজন। এফডিসিতে যত না সিনেমার উন্নতি নিয়ে আলোচনা হয় তারচেয়ে বেশি হয় রেষারেষি। ব্যাক্তিগত জীবনে শাকিল খান চিত্রনায়িকা জনাকে ভালোবেসে বিয়ে করেছিলেন। কিন্তু সেই বিয়ে ভেঙে যায়। জনার ঘরে শাকিলের এক পুত্র সন্তান রয়েছে। পরে শাকিল পারিবারিকভাবে বিয়েবন্ধনে আবদ্ধ হন। বর্তমানে সেই ঘরে তার দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। পরিবার পরিজন নিয়ে সুখেই সময় পার করছেন বলে জানান এ নায়ক।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
আমির হাসান
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার, ১০:১৫

আমাদের চলচ্চিত্র শিল্পে কোন উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন নেই। আমাদের চলচ্চিত্র শিল্প অবৈজ্ঞানিক চলচ্চিত্র তৈরি করে যার মধ্যে প্রচুর অপ্রয়োজনীয় রোমান্টিকতা, সহিংসতা এবং গান রয়েছে। সেই সিনেমাগুলো দেখে আমাদের কিশোর, তরুণরা বিপথগামী হয়। তাই, এখন থেকে আমাদের কেবল সেই গল্পগুলোর চিত্রায়ন করা উচিত যা বৈজ্ঞানিক ও সামাজিকভাবে প্রাসঙ্গিক এবং আমাদের যুব সমাজ ও সমাজের জন্য উপযোগী।

অন্যান্য খবর