× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিঃ

৭৯ বছর বয়সে মারা গেলেন বরিস জনসনের মা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(২ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ১৪, ২০২১, মঙ্গলবার, ৪:৪৭ অপরাহ্ন

বৃটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের মা শার্লট জনসন ওয়াহল আর নেই। সংবাদপত্র টাইমসে প্রকাশিত এক নোটিশে জানানো হয়েছে, ৭৯ বছর বয়সে তার 'আকস্মিক ও শান্তিপূর্ণ' মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর সময় তিনি পশ্চিম লন্ডনের সেন্ট ম্যারি'স হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। কর্মজীবনে তিনি একজন চিত্রশিল্পী ছিলেন। তার মৃত্যুর পর বৃটেনের প্রধান রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্বরা শোক জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে সমবেদনা জানিয়ে বার্তা দিয়েছেন বিরোধীদল লেবার পার্টির নেতা স্যার কেইর স্টার্মারও। এক টুইটে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর এই ক্ষতির কথা জানতে পেরে আমি অত্যন্ত দুঃখিত। তিনি ও তার পরিবারের সকল সদস্যের প্রতি আমি সমবেদনা জানাচ্ছি।


কনজার্ভেটিভ দলের চেয়ারওম্যান আমান্ডা মিলিং বলেন, তিনি ঘটনার দিন বিকেলেও প্রধানমন্ত্রীর পরিবার নিয়ে ভাবছিলেন। টরি এমপি কনর বার্নস প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ট বন্ধু হিসেবে পরিচিত। তিনি এক টুইটে বলেন, বরিস জনসনের মায়ের মৃত্যুর কথা শুনে অত্যন্ত দুঃখ অনুভব করছি। তার পরিবারের সদস্যদের জন্য সমবেদনা ও প্রার্থনা।

শার্লট জনসনের বাবা ছিলেন ১৯৭০-এর দশকে ইউরোপীয় মানবাধিকার কমিশনের প্রেসিডেন্ট। তিনি ১৯৬৩ সালে বরিস জনসনের বাবা স্ট্যানলি জনসনকে বিয়ে করেন। এসময় তিনি অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ছিলেন। তাদের ৪ সন্তান রয়েছে। তারা হলেন বরিস জনসন, সাংবাদিক র‌্যাচেল, সাবেক মন্ত্রী জো এবং পরিবেশ বিজ্ঞানী লিও। ১৯৭৯ সালে তার বরিস জনসনের বাবার সঙ্গে বিচ্ছেদ হয়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর