× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিঃ

হয়ে গেল ন্যান্‌সি-মেহেদীর গায়ে হলুদ অনুষ্ঠান

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার

জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী নাজমুন মুনিরা ন্যান্‌সি আগেই জানিয়েছিলেন, বিয়েটা বেশ জমকালো আয়োজনে সারতে চান এবার। যদিও বেশ ঘরোয়াভাবে গত আগস্টের শেষ সপ্তাহে গীতিকবি মহসীন মেহেদীর সঙ্গে বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হন তিনি। একেবারের পারিবারিকভাবে আয়োজিত আকদ অনুষ্ঠানে শুধু কাছের মানুষরা উপস্থিত ছিলেন। সম্প্রতি গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছেন তারা। আর কালই হচ্ছে তাদের বিবাহোত্তর সংবর্ধনা। এই নবদম্পতি তাদের গায়ে হলুদের বেশকিছু ছবি প্রকাশ করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে। সেখানে দেখা যায়, বর-কনে দু’জনই সেজেছেন হলুদ সাজে। ন্যান্‌সি পরেছেন হলুদ লেহেঙ্গা।
সঙ্গে মানানসই সাজ। আর মেহেদীর পরনে ছিল হলুদ রঙা পাঞ্জাবি ও কটি। হাস্যোজ্জ্বল সে আয়োজনে অংশ নিয়েছেন দুই পরিবারের সদস্যরাও। এরইমধ্যে এ ছবিগুলোর বিপরীতে শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন ন্যান্‌সি ও মেহেদীর শুভাকাঙ্ক্ষীরা। জানা গেছে, আগামীকাল গুলশানের একটি হলে বেশ জমকালো আয়োজনে বিবাহোত্তর সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত হবে ন্যান্‌সি-মেহেদীর। পরিবার, শোবিজ অঙ্গনের মানুষ ও সংবাদকর্মীদের উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে এ অনুষ্ঠানে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Monjur Ahmed
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৩:৫৬

How long need to wait for next fourth marriage day? Time Will say perfect Time.

akas
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার, ১০:৫৩

এই বিয়ে যে টিকবে এটির গ্যারান্টি কি?

Nobody
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার, ৫:১১

বহু বিবাহ। টাকা থাকলেই কি বহু বিবাহ করা যায়... ইসসসসস আমার যদি টাকা থাকত অনেক তাহলে আমি ন্যান্সি আপুরে প্রস্তাব দিতে পারতাম

এনামুল হক
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার, ১:৪৬

ভবিষ্যতের টেকসই বিশ্বে, বিয়ের আগে, ছেলে এবং মেয়ের জন্য বিবাহ সম্পর্কিত লিখিত এবং মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের বাধ্যবাধকতা থাকবে। যদি দুজনেই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়, তাহলে তাদের বিয়ে করার অনুমতি দেওয়া হবে। কারণ, মানুষের জীবনে বিয়ের সিদ্ধান্তই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত।

অন্যান্য খবর