× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিঃ

২০০ নারীর স্পর্শকাতর ছবি ভিডিও নিয়ে ব্ল্যাকমেইল

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার

অনুপ পোদ্দার ওরফে মনির খান (৪১)। তার টার্গেট ছিল স্বামী পরিত্যক্তা বা তালাক প্রাপ্ত মেয়েদের। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি বিবাহিত ও বেসরকারি চাকরিজীবী। সুস্থ স্বাভাবিক জীবনের আড়ালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মুসলিম পরিচয়ে ভুয়া ঠিকানা ও অন্যের ছবি ব্যবহার করে ব্ল্যাকমেইলের মাধ্যমে পর্নোগ্রাফি ও অর্থ আত্মসাতের কারবার চালিয়ে আসছিল। এমন প্রতারককে গত সোমবার রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকার এলিফেন্ট রোড থেকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করেছে।
র?্যাব-৪ এর অপারেশন অফিসার এএসপি মো. জিয়াউর রহমান জানান, সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে তাকে নিউমার্কেট এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গ্রেপ্তার হওয়া আসামির প্রকৃত নাম অনুপ পোদ্দার। সুস্থ স্বাভাবিক জীবনের আড়ালে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিজেকে মুসলিম পরিচয়ে, ভুয়া ঠিকানা ও অন্যের ছবি ব্যবহার করে ‘মনির খান ও হারুন’ নামে ফেক আইডি খুলেন।
এরপর বিভিন্ন পাত্র/পাত্রী চাই, ম্যারেজ মিডিয়ার ফেসবুক গ্রুপ থেকে স্বামী পরিত্যক্তা বা তালাকপ্রাপ্ত মেয়েদের টার্গেট করেন। তিনি আরও জানান, এরপর ধীরে ধীরে সম্পর্কের গভীরতার একপর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখান। বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঘনিষ্ঠতার একপর্যায়ে তাদের ইমোশনকে ব্যবহার করে বিভিন্ন স্পর্শকাতর ছবি ও ভিডিও গোপনে ধারণ করে শুরু করেন ব্ল্যাকমেইল।
র‌্যাব-৪ সূত্রে জানা গেছে, প্রথম পর্যায়ে তিনি নারীদের বিভিন্ন হোটেলে দেখা করার কথা বলেন এবং অবৈধ বা অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দেন। এতে রাজি না হলে গোপনে ধারণ করা ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দিয়ে ভয়ভীতি দেখিয়ে ৫-৬ লাখ টাকা দাবি করতেন। এদিকে সমাজে লোকচক্ষুর ভয়ে বাধ্য হয়ে অনেকেই তার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে লিপ্ত হয়েছেন এবং কেউ কেউ অল্প টাকা দিয়ে রেহাই পেয়েছেন।
র‌্যাব জানায়, গোপনে ধারণকৃত নারীদের স্পর্শকাতর ভিডিও ও ছবি এবং বিভিন্ন পর্নোভিডিও তার দ্বারা পরিচালিত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গোপন গ্রুপে পোস্ট ও শেয়ার করতেন। এ ছাড়া ২০০ এর অধিক ভুক্তভোগী নারীর ছবি ও ভিডিও সম্বলিত তার মোবাইলটি জব্দ করা হয়েছে। তার গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
MAJUMDER SANTOSH
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার, ৪:২৩

আমাদের চিন্তাধারা পরিবর্তন দরকার

সাদাত হাসান
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার, ৮:১৭

আমরা সব বাংলাদেশী, আমাদের কোন ভবিষ্যৎ নেই। বন্দুকযুদ্ধে মারা, মাদক উদ্ধার, বিদেশী মদ উদ্ধার, পর্নো ভিডিও উদ্ধার, এর মানে হল, আমরা সবাই বাংলাদেশি অপরাধী নাগরিক। আসুন আমরা সবাই একসাথে আমাদের চিন্তাধারা পরিবর্তন করি। আমাদের জীবনের কোন নিরাপত্তা নেই। কারণ, আমাদের যে কেউ যে কোন সময় যে কোন দুর্ঘটনায় মারা যেতে পারে।

শাজিদ
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার, ২:৫৭

স্বামী পরিত্যক্ত কিংবা বিধবাকে টার্গেট করত আর ঐ মহিলা গুলি লোভে পড়ে নিজেকে বিলিয়ে দিতেন (বলা যায় এটি ফেইসবুক যন্ত্রের বড় অর্জন)। বলা হচ্ছে গোপনে অশ্লীল ছবি ভিডিও ধারণ করেছে এর অর্থ হল মেয়ে গুলির জবরদস্তি করা হয় নাই যদিও বা গোপন ছবি ভিডিও এর ব্যপারে এরা জ্ঞ্যাত ছিলেন না। বিষয়টি আমাদের নারীবাদী নেত্রীদের নজরে আনলে চোখ বন্ধ করে বলে দিবেন স্বামী পরিত্যক্ত কিংবা বিধবারা তাদের জৈবিক চাহিদা পুরনের অধিকার রাখেন। হেঁ কথাটা ১০০℅ সঠিক, এই জন্যই তো স্ত্রীর ভরন পোষনে সমর্থ পুরুষকে চারটি বিয়ে করার অনুমতি দিয়েছে যাতে এই অসহায় নারীরা দুষ্ট লোকের খপ্পরে না পড়ে এবং অসামাজিক পথে পা না বাড়ায়। আফসোস আমাদের আধুনিক বুদ্ধিজীবীরা নারীর অধিকার এবং স্বাধীনতা কোথায় সেই জ্ঞান অর্জন করেন নাই।

অন্যান্য খবর