× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ১৩ আশ্বিন ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ সফর ১৪৪৩ হিঃ
নির্বাচনের আগে বোমা তৈরি

বিস্ফোরণে উড়ে গেল ঘরের টিন কাউন্সিলর প্রার্থীর দেহরক্ষী আহত

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর থেকে
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার

আগামী ২০শে সেপ্টেম্বর নওয়াপাড়া পৌরসভার নির্বাচন। নির্বাচনকে সামনে রেখে পৌর এলাকার ৮ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর ও বর্তমান কাউন্সিলর প্রার্থী আসাদ বিশ্বাসের দেহরক্ষী শপ্পা (৩৫) বোমা তৈরি করছিলেন। নিজ ঘরে বোমা বানাতে গিয়ে বিস্ফোরণে শপ্পা জখম হয়েছেন। এ সময় বোমা বিস্ফোরণে ওই ঘরের টিনের চালা উড়ে যায় এবং দেয়ালে ফাটলের সৃষ্টি হয়। সোমবার রাত একটার দিকে রাজঘাট কার্পেটিং বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
আহত শপ্পা ওই এলাকার ইব্রাহিম মোল্যার ছেলে। তিনি স্থানীয় সাবেক কাউন্সিলর ও বর্তমান কাউন্সিলর প্রার্থী আসাদ বিশ্বাসের দেহরক্ষী। তার হাতের তিনটি আঙুল, চোখ, মুখমণ্ডল, বুক ও দু’টি পায়ে মারাত্মকভাবে জখম হয়েছে।
বোমা তৈরির সময় তার হাতেই বিস্ফোরিত হয় বলে পুলিশের ধারণা।
পুলিশ ও পরিবার সূত্রে জানা যায়, শপ্পা নিজ ঘরের দরজা লাগিয়ে ভেতরে বোমা তৈরি করার সময় তা বিস্ফোরিত হয়। পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল থেকে বিস্ফোরিত বোমার আলামত, কাউন্সিলর প্রার্থী আসাদ বিশ্বাসের মোটরসাইকেল ও পাঁচটি ধারালো রামদা উদ্ধার করেছে।
পুলিশ জানায়, শপ্পা একজন বোমা তৈরির কারিগর। তিনি নিজ ঘরে বোমা বানানোর সময় বিকট শব্দে তা বিস্ফোরিত হয়। এ সময় পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা আহতাবস্থায় তাকে উদ্ধার করে অভয়নগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাকে পাঠানো হয়।
হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসক সাদিয়া জাহান বলেন, বোমার স্প্লিন্টারে তার চোখ-মুখমণ্ডলসহ শরীরের সিংহভাগ অংশ মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। এ কারণে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগের বিষয়ে কাউন্সিলর প্রার্থী আসাদ বিশ্বাস বলেন, আমি অসুস্থ। শপ্পা আমার মোটরসাইকেল চালায়। আমার মোটরসাইকেলটি তার বাড়িতে থাকে।
এ ব্যাপারে অভয়নগর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম শামীম আহসান জানান, নিজ ঘরে বোমা তৈরিকালে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ওই ঘরের মধ্য থেকে পাঁচটি রামদা, একটি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। বিষয়টি গভীরভাবে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার, ৫:৩৮

ভাগ্যিস তার দেহ উড়ে যায় নি । যা অবশ্যম্ভাবী ছিল।

অন্যান্য খবর