× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৮ অক্টোবর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

কাবুলে অপহৃত আফগান বংশোদ্ভূত ভারতীয় নাগরিক

অনলাইন


(১ মাস আগে) সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, শুক্রবার, ১২:০৯ অপরাহ্ন

কাবুলে সন্ত্রাসের আবহ অব্যাহত। এবার আফগানিস্তানের হিন্দু খোস্ত সম্প্রদায়ের একজন আফগান বংশোদ্ভূত ভারতীয় নাগরিক বাঁশরি লাল আরেন্দেহ (৫০) কে কাবুল থেকে অপহরণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইন্ডিয়ান ওয়ার্ল্ড ফোরামের সভাপতি পুনীত সিং চান্দক। পুনীত সিং জানান, বাঁশরি লাল কে একেবারে বন্দুকের সামনে রেখে অপহরণ করা হয়। তথ্য অনুসারে, দিল্লি এনসিআর অঞ্চলের ফরিদাবাদে থাকেন বাঁশরি লাল আরেন্দেহ-এর পরিবার। আরেন্দেহ একজন ব্যবসায়ী যিনি গত দুই দশক ধরে আফগানিস্তানে ফার্মাসিউটিক্যাল পণ্যের ব্যবসা করেন। তিনি যখন কর্মীদের নিয়ে কাবুলে তার দোকানের দিকে যাচ্ছিলেন তখন অপহরণের ঘটনাটি ঘটেছিল। কাবুল থেকে একটি স্থানীয় সূত্র নিশ্চিত করেছে যে, মঙ্গলবার সকাল থেকে বাঁশরি লাল ৩৬ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে নিখোঁজ রয়েছেন। ঘটনাটি কাবুলের পুলিশ জেলা-১১ এর সীমানায় সংঘটিত হয়েছে এবং কাবুলের স্থানীয় পুলিশ আরেন্দেহর অপহরণের মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে।
'ইন্ডিয়ান ওয়ার্ল্ড ফোরাম'-এর সভাপতি পুনীত সিং চান্দক ভারত সরকারের কাছে বিষয়টি তুলে ধরেছেন এবং অপহৃত ব্যবসায়ীর পরিবারকে সর্বোচ্চ পর্যায়ে সহায়তা করার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এবং কেন্দ্রীয় বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। দিল্লি শিখ গুরুদ্বার ম্যানেজমেন্ট কমিটির (ডিএসজিএমসি) নেতা মনজিন্দর সিং সিরসাও ভারত সরকারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সিরসা বলেন, "কিছু অস্ত্রধারী লোক বন্দুকের ভয় দেখিয়ে বাঁশরি লালকে অপহরণের পর, তার ভাই এবং স্থানীয় কিছু মানুষজন তার অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি কাবুলের একজন সুপ্রতিষ্টিত ব্যবসায়ী। আমি কাবুলের মানুষের সঙ্গে কথা বলেছি। আমি পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের প্রতি অনুরোধ জানাচ্ছি অবিলম্বে বাঁশরি লালকে উদ্ধারের ব্যবস্থা করা হোক। কাবুলের সংখ্যালঘুরা তাদের জীবন ও নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত।" এ বিষয়ে আফগান কর্তৃপক্ষ কী ব্যবস্থা নিচ্ছে এই প্রশ্ন করা হলে, চান্দক জানান 'আফগানিস্তানের ইসলামিক আমিরাতের গোয়েন্দা বিভাগের ০২১ ইউনিট মামলাটি গ্রহণ করেছে এবং বর্তমানে এই বিষয়ে তদন্ত করছে।' স্থানীয়রা প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের সঙ্গে দেখা করেছেন তবে এখনো অপহৃত ব্যবসায়ীর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি বলে খবর। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, অপহরণকারীরা ওই ব্যবসায়ীকে একটি গাড়িতে তুলে নিয়ে যায় যা প্রাথমিকভাবে তালেবান কর্মকর্তারা ব্যবহার করে। এদিকে মামলা নথিভুক্ত করার পর বাঁশরির খোঁজে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালাচ্ছে তালেবানরা। চান্দক জানান, বাঁশরি লাল কোথায় আছেন এবং তার অপহরণের বিষয়ে আরও তথ্য সংগ্রহ করার জন্য তাঁরা ভারত সরকারের সাথে যোগাযোগ রেখে চলেছেন। বাঁশরি লাল প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে চান্দক জানান, "বাঁশরি লাল-এর পরিবার ভারতে থাকেন এবং তিনি একজন ভারতীয় নাগরিক। ব্যবসায়ী হওয়ার জন্য প্রায়শই তাকে আফগানিস্তানে যেতে হয়। তার বড় ভাই অশোক কুমার যিনি তার ব্যবসায় অংশীদার তিনিও কাবুলে আছেন। তালেবানরা সেখানকার সরকার দখল করার আগে বাঁশরি লাল কাবুলে ছিলেন এবং তিনি ভারতে আসতে চেয়েছিলেন কিন্তু ফ্লাইট সঠিকভাবে পরিচালিত না হওয়ায় আসতে পারেননি''।

সূত্র : times of India

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর