× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০২১, শনিবার , ১ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

হত্যার পর ১৭ বছর পালিয়ে বিদেশে, অতঃপর..

অনলাইন

ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি
(৪ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ১৭, ২০২১, শুক্রবার, ৩:০০ অপরাহ্ন

ঢাকার ধামরাইয়ে ১৭ বছর আগে তৈয়বুর রহমান নামে এক ব্যক্তিকে হত্যা করে সৌদি আরব পাড়ি দিয়েছিলেন ফিরোজ আলম নামের এক আসামি। মামলা শেষ হয়ে গেছে ভেবে দেশে আসেন তিনি। বিষয়টি জানতে পারে পুলিশ। গতকাল ধামরাইয়ের কালামপুর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের পাশ থেকে গ্রেপ্তার হন তিনি। গ্রেপ্তার ফিরোজ আলম ধামরাই উপজেলার শরীফবাগ গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে।
জানা গেছে, ২০০৪ সালের সেপ্টেম্বর মাসে একটি তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধামরাইয়ের শরীফবাগ গ্রামের নুরুল ইসলামের ছেলে তৈবুর রহমানকে পৌরসভার সীমা সিনেমা হলের সামনে ছুরিকাঘাত করে ফিরোজ আলম। এতে ঘটনাস্থলেই নিহত হন তৈয়বুর রহমান। এ ঘটনায় একটি হত্যামামলা দায়ের করেন নিহতের পিতা।
এ মামলায় কিছুদিন পালিয়ে থেকে ফিরোজ আলম সৌদি আরবে চলে যান। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। সৌদি আরবে ১৭ বছর অবস্থানকরার পর দেশে আসেন ফিরোজ।
ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ আতিকুর রহমান বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কালামপুর সাব রেজিষ্ট্রি অফিসের পাশ থেকে তৈয়বুর রহমান হত্যা মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি ফিরোজআলমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Hossain
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ৬:৪৯

মুনিয়া হত‍্যা ও ধর্ষণ মামলার আসমিদের নাম এক সাপ্তহ পর্যন্ত কোন মিডিয়া প্রচার করতে পারনি। তাহলে কিভাবে বুঝলাম আইনের শাসণ প্রতিষ্টা হইছে। বাংলাদেশের আইনের শাসণ শক্তের বক্ত নরমের যম। এটা বাংলাদেশের সব সরকারের আমলে ছিল বর্তমানে আছে ভবিষ্যতে ও থাকবে।

নাহিদ সামাদ
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ৪:১৯

এটি ইঙ্গিত করে যে বর্তমানে বাংলাদেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত। যারা অপরাধ করছে তাদের বিচারের আওতায় আনা হচ্ছে। মানুষ এখন আইনের শাসনকে সম্মান করে এবং আইনের শাসনে বিশ্বাস করে। মানুষ এখন স্বাধীনভাবে চিন্তা করছে, স্বাধীনভাবে কাজ করছে এবং স্বাধীনভাবে চলাফেরা করছে।

Amirswapan
১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ২:৫৬

পাপ বাপকে ছাড়লেও পাপীকে ছাড়ে না।

অন্যান্য খবর