× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৮ অক্টোবর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

সন্তান পরিচয়ে হোটেলে ফেলে রেখে গেল, বৃদ্ধাকে হাসপাতালে নিলো পুলিশ

বাংলারজমিন

কালীগঞ্জ (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, শনিবার

আমার মা এখানে থাক, ওষুধ কিনে এনে নিয়ে যাচ্ছি। ছেলে পরিচয়ে খাবার হোটেলে এক নারীকে বসিয়ে রেখে চলে গেলেন ছেলে পরিচয়দানকারী এক যুবক। এরপর আর ফিরে আসেনি সেই যুবক। হোটেলেই অজ্ঞান হয়ে পড়ে যান বৃদ্ধা মহিলা (৬০)। খবর পেয়ে কালীগঞ্জ থানার এসআই আলামিন হোসেন ও সঙ্গীয় ফোর্স এসে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। বৃদ্ধা মহিলার নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। ঘটনাটি ঘটেছে গত বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ শহরের শাহী নান্না বিরিয়ানি হাউজে।
শাহী নান্না বিরিয়ানি হাউজের ম্যানেজার রিফাত হোসেন জানান, দুপুর দেড়টার দিকে বৃদ্ধা মহিলাকে সঙ্গে নিয়ে এক যুবক আসেন। একদম পিছনের দিকে বসেন।
১০/১৫ মিনিট পর ওই ছেলেটি তাকে বলেন, মা এখানে থাক, ওষুধ কিনে এনে নিয়ে যাচ্ছি। ওই যুবক আর ফিরে আসেনি। বসেই থাকেন ওই মহিলা। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তিনি অজ্ঞান হয়ে পড়েন। এরপর পুলিশকে খবর দেয়া হলে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়।
কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ইমতিয়াজ আলম জানান, অজ্ঞাত মহিলার চিকিৎসা চলছে। রাত সাড়ে ১০টা পর্যন্ত জ্ঞান ফিরে আসেনি। এখনো তার জ্ঞান ফিরে আসেনি। কিন্তু তার অক্সিজেন লেভেল ও প্রেসার ঠিক আছে।
কালীগঞ্জ থানার এসআই আলামিন হোসেন জানান, তিনি বৃহস্পতিবার ইমার্জেন্সি ডিউটিতে ছিলেন। খবর পেয়ে শাহী নান্না বিরিয়ানি হাউজে গিয়ে বৃদ্ধাকে উদ্ধার করেন। তখন তিনি অজ্ঞান ছিলেন। এরপর চিকিৎসার জন্য কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। এখনো জ্ঞান ফিরে আসেনি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর