× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০২১, শনিবার , ১ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

খুলনায় আওয়ামী লীগ নেতা বহিষ্কার

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার

আগামীকাল ২০শে সেপ্টেম্বর ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন। এর ঠিক আগ মুহূর্তেই নগরীর ৩২ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রেজাউল শেখের অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল হয়ে গেছে। সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে ছোট-বড় সকলের মুঠো ফোনে আওয়ামী লীগ নেতার রেজাউলের অশ্লীল কর্মকান্ডের ভিডিও। আগামী নির্বাচনে সে আড়ংঘাটা ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ডের মেম্বর প্রার্থী। ভিডিও ভাইরাল হওয়ায় বিপাকে পড়েছে আওয়ামী লীগের সকল পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। এদিকে বর্তমানে রেজাউলের পক্ষ থেকে সকল প্রচারণা বন্ধ করা হয়েছে। এলাকা ছাড়া রয়েছে তিনি।
জানা যায়, বহুল আলোচিত রেজাউল খুব অল্প সময়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদ পেয়ে যান। এরপর তিনি তার পদকে ব্যবহার করে নানান কাজে আলোচিত হন।
বিশেষ করে পার্টি অফিসে চেয়ারের ছবি এবং ধূমপানসহ নানান কাজে সে ছিল আলোচিত। গত আগস্ট মাসে সকল নিয়ম নীতি ভঙ্গ করে রেজাউল শেখ ও স্থানীয় আওযামী লীগের সভাপতি আড়ংঘাটা ছাত্রলীগের কমিটির ঘোষণা দেন। যেটা খুলনায় আগস্ট মাসে বেশ আলোচিত ছিল। প্রথমত আগস্ট মাস শোকের মাস, এরপর ছাত্রলীগের সঙ্গে কোনো ধরনের যোগাযোগ না করেই আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ কমিটি ঘোষণা দেওয়ায় বেশ সমালোচনার সৃষ্টি হয়। তৎকালীন সময়ে সাংবাদিকদের রেজাউল বলেছিলেন, এটা আমাদের ভুল হয়েছে। পরে সংশোধন করে  দেবো।
এদিকে রেজাউল এলাকায় এতটাই প্রভাব দেখাত যে, তার ভয়ে কেউ কথা বলতে চাইত না। গত বুধবার সকলের মুঠো ফোনে ম্যাসেঞ্জার ও ওয়াটসআপের মাধ্যমে রেজাউলের সাথে এক মধ্যবয়স্ক মহিলার অশ্লীল ভিডিও ভাইরাল হয়। ঐদিনই এলাকায় তার পক্ষে প্রচারণা চলে। তবে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়ার পর থেকে আওয়ামী লীগের ঊর্ধ্বতন নেতারা খুবই বিপাকে পড়েন। এমনকি এলাকার সাধারণ মানুষও রেজাউলের এমন কৃতকর্মেও ঘটনায় ভর্ৎসনা দেয়। এমন পরিস্থিতি শুক্রবার থেকে রেজাউলের পক্ষে এলাকায় প্রচারণা বন্ধ রয়েছে। এমনকি তার কোনো সন্ধানও পাওয়া যাচ্ছে না। তার ব্যবহৃত মোবাইলে একাধিকবার ফোন দিলেও তার সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মাহবুব আলম সোহাগ জানান, অনৈতিক কাজের সঙ্গে জড়িত থাকা এবং দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করা অপরাধে রেজাউলকে ৩২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শুক্রবার মহানগর ও দৌলতপুর থানা আওয়ামী লীগ যৌথ সিদ্ধান্ত তাকে বহিষ্কার করা হয়। সংগঠনের কার্যক্রম চালিয়ে নেয়ার জন্য সভাপতিসহ প্রস্তাবিত কমিটিকে নির্দেশ প্রদান করেছেন মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি ও সিটি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানা, দৌলতপুর থানা সভাপতি শেখ সৈয়দ আলী, সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর