× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০২১, শনিবার , ১ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

মুক্তির জন্য প্রস্তুত ২০ সিনেমা

বিনোদন

কামরুজ্জামান মিলু
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার

দেশের সিনেমা হল ধীরে ধীরে খোলা শুরু করেছে। অন্যদিকে প্রস্তুত হচ্ছে বেশকিছু নতুন সিনেমা। মুক্তির অপেক্ষায়ও দিন গুনছে কিছু ভালো আয়োজনের সিনেমা। এসব সিনেমা মুক্তি পেলে খরা কেটে যাবে বলে আশা করছেন প্রযোজক ও পরিচালকরা। বর্তমানে মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে ২০টিরও বেশি সিনেমা। সেগুলোর মধ্যে আছে ‘মিশন এক্সট্রিম’, ‘শান’, ‘পরান’, ‘জ্বীন’, ‘বিক্ষোভ’, ‘ক্যাসিনো’, ‘আনন্দ অশ্রু’, ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’, ‘ইত্তেফাক’, ‘বিদ্রোহী’, ‘অন্তরাত্মা’, ‘হাওয়া’, ‘পাপপুণ্য’, ‘অপারেশন সুন্দরবন’, ‘গিরগিটি’, ‘সিক্রেট এজেন্ট’, ‘মুখোশ’, ‘চোখ’, ‘লিডার- আমিই বাংলাদেশ’, ‘রিভেঞ্জ’, ‘পদ্মাপুরাণ’, ‘বাজি’, ‘চন্দ্রাবতী কথা’। করোনার কারণে প্রায় দেড় বছর স্থবির থাকার পর আবার মুখর হয়ে উঠছে চলচ্চিত্রাঙ্গন। আগস্টে সিনেমা হল খোলার ঘোষণা আসার পর প্রযোজকরা সিনেমা মুক্তির জন্য ভালো সময় খুঁজছিলেন।
অক্টোবরে বেশকিছু সিনেমা মুক্তি পাবে প্রেক্ষাগৃহে। অক্টোবরের ৩ সপ্তাহে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ৬টি সিনেমা। এগুলো হলো ‘কসাই’, ‘চোখ’, ‘ঢাকা ড্রিম’, ‘পদ্মাপুরাণ’, ‘বাজি’ এবং ‘চন্দ্রাবতী কথা’।  রাজধানীর মধুমিতা সিনেমা হলের ব্যবস্থাপক ইফতেখার উদ্দিন নওশাদ বলেন, ১লা অক্টোবর থেকে সিনেমা হল খুলবো। কলকাতার জিৎ-মিমি চক্রবর্তী অভিনীত ‘বাজি’ সিনেমাটি চালাবো। এ ছাড়া নতুন দেশীয় বাংলা সিনেমাগুলো চলবে। চলচ্চিত্রের সুদিনের জন্য দেশি-বিদেশি সব ধরনের সিনেমা চালাতে হবে আমাদের। এবার সিনেমা হলে দর্শক না ফিরলে আর ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগ নেই। এদিকে, আলোচিত সিনেমা ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ এর নির্বাহী প্রযোজক জানিয়েছেন, অক্টোবরের শেষ সপ্তাহে সিনেমাটি মুক্তি দেয়ার পরিকল্পনা তাদের। পূর্ণদৈর্ঘ্য ছাড়া স্বল্পদৈর্ঘ্য সিনেমাও আছে অনেক পরিচালকের হাতে। অনুদানের স্বল্পদৈর্ঘ্য নির্মাণ করবেন প্রবীর কুমার সরকার, শরীফ রেজা মাহমুদ, এ বি এম নাজমুল হুদা, সাজেদুল ইসলাম, দেবাশীষ দাশ, ফখরুল আরেফীন খান, সোহেল আহমেদ সিদ্দিকী, মিতালি রায় ও চৈতালি সমাদ্দার। ২০২০-২১ অর্থবছরে পূর্ণদৈর্ঘ্য ২০টি চলচ্চিত্রকে অনুদান দেয় সরকার। জাহাঙ্গীর হোসেন মিন্টুর ‘ক্ষমা নেই’, নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলের ‘সাড়ে তিন হাত ভূমি’, উজ্জ্বল কুমার মণ্ডলের ‘মৃত্যুঞ্জয়ী’, হাসান জাফরুল ও এফ এম শাহীনের ‘মাইক’, লুবানা শারমিনের ‘নুলিয়াছড়ির সোনার পাহাড়’ নির্মাণ পর্বে রয়েছে। এ ছাড়া কাজী হায়াতের ‘জয় বাংলা’, অনিরুদ্ধ রাসেলের ‘জামদানি’, জাহিদুর রহিম অঞ্জনের ‘চাঁদের অমাবস্যা’, মেজবাউর রহমান সুমনের ‘রইদ’, অরুণ চৌধুরীর ‘জলে জ্বলে’, অরুণা বিশ্বাসের ‘অসম্ভব’, মীর্জা সাখাওয়াত হোসেনের ‘ভাঙন’ অপেক্ষমাণ। প্রযোজক সেলিম খান ১০০ সিনেমা নির্মাণের ঘোষণা দিয়েছেন। সেখান থেকে এরইমধ্যে ৩০টির মতো সিনেমা নির্মাণের কাজ অনেকখানি এগিয়ে গেছে বলে জানালেন তিনি। এগুলো মুক্তি পেলে প্রেক্ষাগৃহে দর্শক আসবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন সিনেমা সংশ্লিষ্টরা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর