× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

রেজানুর রহমানের নেতৃত্বে উৎসব চিলড্রেন থিয়েটার গঠন

এক্সক্লুসিভ

স্টাফরিপোর্টার
১২ অক্টোবর ২০২১, মঙ্গলবার

শিশু-কিশোরদের অভিনয় প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে ‘উৎসব চিলড্রেন থিয়েটার’ নামে দেশে একটি নতুন নাট্য সংগঠন গঠিত হয়েছে। বিশিষ্ট নাট্যকার, নির্দেশক রেজানুর রহমানের নেতৃত্বে উৎসব টেলিফিল্ম আয়োজিত মাসব্যাপী এক শিশু-কিশোর নাট্য কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় দেশ বরেন্য নাট্যজন মামুনুর রশীদ উৎসব টেলিফিল্মের পক্ষে নতুন এই নাট্য সংগঠনের ঘোষণা দিয়েছেন। স্কুল পড়ুয়া শিশু-কিশোররা এই নতুন নাট্য সংগঠনের সদস্য হতে পারবে। কর্মশালায় যুক্ত ১৯ জন শিশু-কিশোর নতুন এই নাট্য সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য হিসেবে গণ্য হবে!
৬ই অক্টোবর শুক্রবার সন্ধ্যায় সেগুনবাগিচাস্থ কেন্দ্রীয় কচিকাঁচা মিলনায়তনে নাট্য কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠানে ‘আমরা একটি নাটক বানাবো’ শীর্ষক একটি মঞ্চ নাটক প্রদর্শন করে শিশু-কিশোর শিক্ষার্থীরা। বিশিষ্ট নাট্যজন মামুনুর রশীদসহ আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ, শিক্ষার্থীদের বাবা-মা ও আত্মীয়স্বজন নাটকটি দেখে ভূয়শী প্রশংসা করেন। মামুনুর রশীদ বলেন, একটা সময় দেশে শিশু-কিশোরদের জন্য অনেক সংগঠন কাজ করতো। এখন আর সেটা দেখা যায় না। এমন অস্থির সময়ে রেজানুর রহমানের নেতৃত্বে উৎসব টেলিফিল্ম যে উদ্যোগটি গ্রহণ করেছে তা প্রশংসনীয়।
বাবা-মায়েদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ছেলে-মেয়েদেরকে জিপিএ-৫ এর জন্য লড়াই করাবেন না। পুঁথিগত শিক্ষার বাইরেও ওদেরকে সাংস্কৃতিক ক্ষেত্রে আগ্রহী করে তুলুন। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি শিশু একাডেমির সাবেক পরিচালক, শিশুসাহিত্যিক আনজীর লিটন বলেন, শিশুদের অভিনয় প্রতিভা বিকাশের লক্ষ্যে উৎসব টেলিফিল্ম যে উদ্যোগ নিয়েছে তার সাফল্য কামনা করি। নাট্য ব্যক্তিত্ব, নির্দেশক রেজানুর রহমানকে ধন্যবাদ জানাই এমন একটি মহৎ কাজে যুক্ত হবার জন্য।
উৎসব টেলিফিল্ম-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সারোয়ার জাহান সিদ্দিকী সুদুর রিয়াদ থেকে জুম এর মাধ্যমে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, উৎসব টেলিফিল্ম এর মূল স্লোগান- অপসংস্কৃতির বিরুদ্ধে সংস্কৃতির লড়াই। এই ভাবনায় শিশু-কিশোরদের জন্য কিছু ভালো কাজ করতে চাই। আমাদের জন্য দোয়া করবেন।
অনুষ্ঠানের শুরুতে কবি, সংগঠক পলক রহমানের নেতৃত্বে উৎসবের নিজস্ব শিল্পী পরিবার ও আমন্ত্রিত শিল্পীদের মধ্যে মনি গোমেজ, আল হেলাল, লিজি আহমেদ, বিলাস চৌধুরী, মুজিবুর রহমান সঙ্গীত পরিবেশন করেন। তবলায় ছিলেন মানিক সরকার। সহযোগিতায় ছিলেন জাফরিন জোবায়েদ, আঁখি আকন্দ, পি কে দেবাশীষ ও অরণ্য রেজা।
উল্লেখ্য, কর্মশালা শেষে যারা সনদপত্র পেলো তাদের নাম- তামিমা সাফা নুহা, আবি মোহাম্মদ জায়ের, অরিত্র কান্তি নাথ, নাবিদ রহমান তূর্য্য, নওশীন তাবাসসুম তৃনা, আব্বাদ ফুরকান সিয়ান, আর্য্য সীমান্ত দাস, আনিকা আজহার, তানাজ আজিম, আফরাহ রাইদা পৃথিয়া, সোহায়েব সাদীব, সৈয়দা লারিসা রোজান, আনিসুর রহমান অপূর্ব, সানজিদা রহমান মূন, সাদিকা রহমান, নাজিয়া রিজভী সুবাহা, উম্মে তাবাসসুম দিয়া মনি, উম্মে সানজুম ও প্রাঙ্গন সরকার।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর