× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

‘পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ও সেনাপ্রধানের মধ্যে সম্পর্ক অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ’

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(৪ দিন আগে) অক্টোবর ১৩, ২০২১, বুধবার, ১১:১১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট: ৮:২০ অপরাহ্ন

সেনাপ্রধান জেনারেল কমর জাভেদ বাজওয়া’র সঙ্গে অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের। তাদের এই বন্ধন আন্তরিক এবং আদর্শিক। পাকিস্তানের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা ইন্টার সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্সের (আইএসআই) মহাপরিচালক (ডিজি) পদে নিয়োগ নিয়ে তারা দীর্ঘ সময় মিটিং করেছেন। আইএসআই প্রধান নিয়োগ সহ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন ইস্যুতে তাদের মধ্যে আলোচনা হয়েছে। পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী মঙ্গলবার এসব তথ্য দিয়েছেন সাংবাদিকদের কাছে। তিনি বলেছেন, বিদ্যমান আইন ও বিধিবিধানের অধীনেই নিয়োগ করা হবে আইএসআই প্রধান। তবে এই গুরুত্বপূর্ণ গোয়েন্দা সংস্থার নতুন প্রধান নিয়োগের এক্তিয়ার রয়েছে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের হাতে। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীপরিষদের সাপ্তাহিক বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।
ফাওয়াদ চৌধুরী আরো বলেন, পাকিস্তান সেনাবাহিনী বা এর প্রধান জেনারেল বাজওয়ার সম্মানহানি হয় এমন কোনোই পদক্ষেপ নেবেন না প্রধানমন্ত্রী। তার দফতর থেকে এ কথা জানিয়ে দেয়া হয়েছে। পক্ষান্তরে সেনাবাহিনী বা সেনাপ্রধান দেশটির প্রধানমন্ত্রী ও বেসামরিক জনগণকে পাশ কাটিয়ে কোনো পদক্ষেপ নেবে না। তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী এবং সেনাপ্রধানের সম্মতিতে সংবিধান ও আইনি বাধ্যবাধকতা অনুসরণ করেই নিয়োগ করা হবে আইএসআইয়ের প্রধান। তবে আইএসএইয়ের মহাপরিচালক বা ডিজি নিয়োগের এক্তিয়ার কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর হাতে রয়েছে। তবে আলোচনার মাধ্যমে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আইএসআই প্রধান নিয়োগ সংক্রান্ত আর কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে অস্বীকৃতি জানান তিনি।
উল্লেখ্য, এরই মধ্যে পাকিস্তানি মিডিয়ায় খবর প্রকাশ হয়েছে যে, আইএসআইয়ের নতুন প্রধান হিসেবে নিয়োগ দেয়া হবে জেনারেল নাদিম আনজুমকে। পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর মিডিয়া উইং থেকে তাকে ডিজি হিসেবে নিয়োগ দেয়ার জন্য নাম ঘোষণাও করা হয়েছে। কিন্তু তাকে নিয়োগ দেয়ার ইস্যুটিতে প্রধানমন্ত্রীর অফিস থেকে নোটিফিকেশন আসেনি। এ নিয়ে নানা বিতর্ক হয় এবং হচ্ছে। তারই মধ্যে এ ইস্যুতে প্রথমবার পাকিস্তান সরকারের একজন মন্ত্রী বক্তব্য রাখলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর