× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

নরওয়েতে তীর-ধনুক দিয়ে ৫ জনকে হত্যা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) অক্টোবর ১৪, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:৫৯ পূর্বাহ্ন

তীর-ধনুক দিয়ে হামলা চালিয়ে নরওয়েতে কমপক্ষে ৫ ব্যক্তিকে হত্যা করেছে এক যুবক। এতে আহত হয়েছেন দু’জন। বুধবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ১৩ মিনিটে রাজধানী অসলোর দক্ষিণ-পশ্চিমে কোংসবার্গ শহরে এ ঘটনা ঘটে। সন্দেহজনকভাবে এ ঘটনায় ৩৭ বছর বয়সী এক ড্যানিশ যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। পুলিশ মনে করছে, তিনি একাই এই হামলা চালিয়েছেন। এটা কি সন্ত্রাসী কোনো ঘটনা কিনা তা তদন্ত করে দেখবে পুলিশ। একে ভয়াবহ বলে বর্ণনা করেছেন প্রধানমন্ত্রী এরনা সোলবার্গ। তিনি সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, বুঝতে পারছি অনেক মানুষ আতঙ্কিত, ভীত।
তবে এটা জোর দিয়ে বলতে পারি- পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে পুলিশ।
শহরটির পশ্চিতে কুপ এক্সট্রা সুপারমার্কেটে এই হামলা হয়। আহতদের মধ্যে একজন পুলিশ সদস্য আছেন। তিনি তখন দায়িত্বে ছিলেন না। এ জন্য কেনাকাটা করতে গিয়েছিলেন মার্কেটে। এরপর একটি চেইন শপ থেকে খবর পাওয়া যায়, মারাত্মক এসব দুর্ঘটনার। তবে তারা জানান তাদের কোনো স্টাফই আহত হননি। হামলাকারী ও পুলিশের মধ্যে বেশ কয়েক দফা মুখোমুখি লড়াই হয়। স্থানীয় একজন প্রত্যক্ষদর্শী টিভি২’কে বলেন, স্টোরের কর্ণারে তীর ধনুক নিয়ে একজন ব্যক্তিকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। কিছুক্ষণের মধ্যে দেখতে পাই মানুষজন জীবন বাঁচাতে দৌড়াচ্ছে। এর মধ্যে একজন নারী তার শিশুর হাত ধরে দৌড়াচ্ছিলেন।
হামলাকারী অন্য কোনো অস্ত্র ব্যবহার করেছিল কিনা তা নিশ্চিত হতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। হামলা চালিয়ে সে বিশাল এক এলাকায় অবস্থান নেয়। এ জন্য শহরের বিভিন্ন স্থান ঘেরাও করে রাখে কর্তৃপক্ষ। অধিবাসীদের বাড়ি থেকে বের হতে বারণ করা হয়। অতঃপর সন্দেহভাজনকে আটক করার পর ড্রাম্মেন শহরে পুলিশ স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর