× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৮ নভেম্বর ২০২১, রবিবার , ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

হিন্দু-মুসলমান নিয়ে মাতামাতি করা যাবে না- মেয়র জাহাঙ্গীর আলম

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, গাজীপুর থেকে
১৬ অক্টোবর ২০২১, শনিবার

পূজামণ্ডপে কোরআন শরীফ অবমাননার অভিযোগ তুলে রাজপথে নেমে আসা লোকজনের উদ্দেশ্যে গাজীপুর সিটি মেয়র এডভোকেট মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেছেন, হিন্দু-মুসলমান নিয়ে মাতামাতি করা যাবে না। এ বিষয়ে সরকার কথা দিয়েছে, ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত তাদেরকে ধরা হবে, বিচার করা হবে। এটা তদন্ত করা হচ্ছে। সরকার দায়িত্ব নিয়েছে।  প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের সবাই বলছেন, যারা যারা অন্যায়ের সঙ্গে জড়িত সবার বিচার করা হবে। তাহলে এখন যদি আপনারা রাস্তায় গিয়ে ভাঙচুর করেন, আগুন দেন তাহলে এসব কার জন্য ভালো হবে? আমরা এদেশের ৯০ ভাগ মানুষ মুসলমান। যারা অন্যায় কাজ করেছে তারা এর খেসারত পাবে। আমরাও মুসলমান। কোনো প্রতিবাদ করতে হলে আমরাই করবো এবং আমরাই আপনাদের সবাইকে ডাকবো।
ধর্মের জন্য আমাদেরও লাগে। আপনারা এভাবে মিছিল, ভাঙচুর না করে বাসায় চলে যান। বিচার না পেলে আমরা আপনাদেরকে প্রয়োজনে মাইকিং করে ডেকে আনবো।
গতকাল দুপুরে জুমার নামাজের পর রাজপথে নেমে আসা উত্তেজিত মুসল্লিদের এসব কথা বলেই নিভৃত করেন মেয়র জাহাঙ্গীর আলম। নগরের একটি মসজিদের সামনে সশরীরে উপস্থিত থেকে তিনি এভাবে নিভৃত করলেন এবং আরও অনেক এলাকায় ব্যক্তিগতভাবে যোগাযোগ করে পরিস্থিতি সামাল দেন। মেয়র জাহাঙ্গীর আলম মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই গাজীপুর মহানগরের প্রায় আড়াই হাজার মসজিদের ইমাম-খতিবদের মাসিক সম্মানী ভাতা দিয়ে যাচ্ছেন। ইমাম-খতিবদের সঙ্গে সুসম্পর্কের কারণে খুব সহজেই বর্তমান ইস্যু নিয়ে উত্তেজনাকর অবস্থায় ঢাকা-ময়মনসিংহ ও ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের পরিস্থিতি সামাল দেয়া সম্ভব হয়েছে। তবে এরপরও শহরের বিভিন্ন স্থানে কোরআন অবমাননার প্রতিবাদে ও জড়িতদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর