× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ৭ ডিসেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার , ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা উস্কে দিতে কোনো তৃতীয় পক্ষই এতে জড়িত থাকতে পারে: নুরুল কবীর

অনলাইন

মানবজমিন ডিজিটাল
(১ মাস আগে) অক্টোবর ১৬, ২০২১, শনিবার, ৯:৩৫ অপরাহ্ন

কুমিল্লায় মন্দিরে পবিত্র কোরআন রাখাকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট পরিস্থিতি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে নানা চর্চা। নানা মুনির নানা মত। সবাই নিজেদের মতো করে ঘটনাপ্রবাহ ব্যাখ্যা করছেন।
ইংরেজি দৈনিক নিউএজ পত্রিকার সম্পাদক, খ্যাতিমান সাংবাদিক নুরুল কবীর এ নিয়ে ফেসবুকে নিজের মতামত লিখেছেন। তিনি মনে করেন, কোন ধর্মপ্রাণ মুসলমান কিংবা কোন ধর্মপ্রাণ হিন্দু উক্ত কাজ করতে পারেন না। দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতা উস্কে দিতে কোন তৃতীয় পক্ষই এতে জড়িত থাকতে পারে বলেও তিনি মনে করেন।

শনিবার নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে তিনি ইংরেজিতে একটি লেখা পোস্ট করেছেন যার বাংলা করলে দাঁড়ায়ঃ

"কোন ধর্মপ্রাণ মুসলমান নিজের পবিত্র গ্রন্থের অবমাননা করে হিন্দু মূর্তির কোলে কোরআন রাখতে পারেন না। কোন ধর্মপ্রাণ হিন্দুও এটা করে মুসলমানদের অনুভূতিতে আঘাত করবেন না, তাও আবার নিজেদের পূজা মন্ডপে ঝামেলা হবে এই ঝুঁকি নিয়ে। দেশের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিকে অস্থিতিশীল করার জন্য সাম্প্রদায়িক সহিংসতা উস্কে দিতে কোন অসৎ উদ্দেশ্যে তৃতীয় পক্ষই এতে জড়িত থাকতে পারে। অতএব, দেশের কিছু এলাকায় ইতিমধ্যেই ছড়িয়ে পড়া সাম্প্রদায়িক সহিংসতাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে দেশপ্রেমিক নাগরিকদের অবশ্যই তাদের নিজ নিজ সামর্থ্য অনুযায়ী কাজ করতে হবে। আর সরকারকে অবশ্যই যারা ইচ্ছাকৃতভাবে এসব অপরাধমূলক অপকর্ম করেছে সেসব অপরাধীদের, তা সে স্থানীয় বা বিদেশী যে-ই হোক না কেন, খুঁজে বের করতে হবে এবং আইনের আওতায় আনতে হবে।"


অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর