× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৭ নভেম্বর ২০২১, শনিবার , ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ
সাম্প্রদায়িক সহিংসতা

সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে গণশুনানি চায় আসক

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) অক্টোবর ২১, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৯:২০ অপরাহ্ন

দেশে সম্প্রতি দুর্গাপূজার সময় বিভিন্ন স্থানে প্রতিমা, পূজামণ্ডপ, মন্দিরে হামলা ভাঙচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ৭২টি ঘটনা ঘটেছে। ৭৭টি বাড়িঘর ও ৪১টি ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা হয়েছে। মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক) এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছে। এসব ঘটনার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে গণশুনানি আয়োজনের সুপারিশ করেছে সংস্থাটি।
বৃহস্পতিবার বিকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানায় আসক। সাম্প্রদায়িক সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোর মধ্যে কুমিল্লা, চাঁদপুর ও নোয়াখালী পরিদর্শন করে আসকের প্রতিনিধিদল। পর্যবেক্ষণের বিষয় তুলে ধরতে এই সংবাদ সম্মেলন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য পাঠ করেন আসকের জ্যেষ্ঠ সমন্বয়ক আবু আহমেদ ফয়জুল কবির।
তিনি বলেন, দুর্গাপূজার সময় বিভিন্ন জায়গায় হামলা চলাকালে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে কোনো কোনো এলাকায় যথাসময়ে সহযোগিতা পাওয়া যায়নি। এমনকি ঘটনা শুরুর পর প্রশাসনকে শঙ্কার কথা প্রকাশ করলেও হিন্দু সম্প্রদায়কে জানানো হয় যে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। ১৮টি জেলায় ১৩ থেকে ২০শে অক্টোবর পর্যন্ত এসব সহিংসতার ঘটনায় ৭ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন অন্তত ২৭৪ জন।
আসক জানায়, নোয়াখালীর চৌমুহনীতে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের অভিযোগ, হামলার সময় সংশ্লিষ্ট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) বারবার ফোন করেও পাওয়া যায়নি। প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে হামলা শেষে পুলিশ ঘটনাস্থলে আসে। চাঁদপুরের হাজীগঞ্জে উচ্ছৃঙ্খল জনতাকে ছত্রভঙ্গের অন্যান্য কৌশল প্রয়োগ না করে পুলিশ শুরুতেই গুলি করে বলে আসক উল্লেখ করে।
সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের স্বার্থে একটি গণশুনানি করে ঘটনাগুলোর সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা এবং আইনের আওতায় আনার সুপারিশ করেছে আসক। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির পুনর্নির্মান করাসহ আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসা প্রদান, পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসন নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি। সংবাদ সম্মেলনে আসকের নির্বাহী পরিষদের মহাসচিব মো. নূর খান, নির্বাহী পরিচালক গোলাম মনোয়ার কামাল, পরিচালক (কর্মসূচি) নীনা গোস্বামী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২২ অক্টোবর ২০২১, শুক্রবার, ১:০১

আসক নিজেদের উদ্যোগে বিভিন্ন এলাকায় গণশুনানি করতে কেউ কি নিষেধ করেছে ? ছায়া তদন্ত করতে পারে । সরেজমিনে গিয়ে । শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কামরায় বসে নয়।

অন্যান্য খবর