× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ নভেম্বর ২০২১, সোমবার , ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ
সংবাদ সম্মেলন

সিলেটে যুক্তরাজ্য প্রবাসীর ফ্ল্যাট দখলের অভিযোগ

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
২৪ অক্টোবর ২০২১, রবিবার

সৎ বোনের ছেলের বিরুদ্ধে বাসার ফ্ল্যাট জবর দখল ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীদের হুমকি প্রদানের অভিযোগ করেছেন এক যুক্তরাজ্য প্রবাসী। গতকাল রোববার দুপুরে সিলেট প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন শাহ্‌জালাল উপশহরের বি ব্লকের ১৫নং রোডের ১৮নং বাসার বাসিন্দা মো. মাশুক উদ্দিন। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মো. মাশুক উদ্দিন বলেন, ১৯৮৯ সালে আমি ও আমার সৎ ভাই মোশাহিদ উদ্দিন মিলে উপশহরে জায়গা কিনে তিনতলা বাসা নির্মাণ করি। দোতলায় আমার পরিবার থাকেন এবং নিচতলা ও তিনতলায় ভাড়া দিয়ে দেই। তিনতলার ভাড়াটে চলে যাওয়ায় এবং আমি প্রবাসে থাকার সুযোগ নিয়ে আমার সৎ বোন আতিবুন নেছার বখাটে ছেলে মিজানুর রহমান নেছার তিনতলার ফ্ল্যাটটি জবরদখল করে নেয়। বর্তমানে আমার দায়ের করা মামলায় মিজানুর রহমান নেছার কারাগারে থাকলেও দখলকৃত বাসাটি এখনো ছাড়েনি। সে কারাগার থেকে আমাকে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। নেছার ও তার সহযোগী সন্ত্রাসীদের হুমকিতে আমি নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।
তিনি বলেন, আমি একজন বয়োবৃদ্ধ ও বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত মানুষ। চিকিৎসার জন্য যুক্তরাজ্য চলে যাই। দেশে অবস্থান করা আমার স্ত্রী সুলতানা আলী হালিমা আমাকে ফোনে জানান ২০২০ সালের ১লা জানুয়ারি তিনতলার ভাড়াটে চলে গেছে। ওইদিনই আমার সৎ বোন আতিবুন নেছার বখাটে ছেলে মিজানুর রহমান নেছার তার সহযোগী ফয়ছল আহমদ, ইসমাইল আলী রাহী, আব্দুর রব, আব্দুল হামিদ হান্দু, আব্দুল করিমসহ আরও সন্ত্রাসীদের নিয়ে তিনতলার ফ্ল্যাটটি জবরদখল করে। আমার স্ত্রী বাধা দিলে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা হয় এবং প্রাণনাশের হুমকি দেয় নেছার। এ খবর পেয়ে ১৪ই জানুয়ারি দেশে চলে আসি। দেশে ফিরে তাকে বাসা ছাড়ার কথা বললে সে আমার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করে এবং বাসা ছাড়বে না বলে আমাকে হুমকি দেয়। এ ব্যাপারে ২৭শে মার্চ শাহপরাণ (রহ.) থানায় মামলা করতে গেলে রহস্যজনক কারণে থানা পুলিশ মামলা গ্রহণ করেনি। থানায় যাওয়ার খবর পেয়ে সন্ত্রাসী নেছার রাত ৯টার দিকে বাসায় প্রবেশ করে আমাকে প্রাণে মারার হুমকি দেয়। এ সময় আমার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে আমার আলমিরার চাবি নিয়ে নেয়। আলমিরার তালা খুলে রক্ষিত দলিলপত্র, ব্যাংক চেকের ৩টি পাতা ছিড়ে নেয়। আলমারিতে থাকা স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ২ লাখ টাকা লুট করে নেয়ে। পরবর্তীতে ২রা এপ্রিল দুপুরে আমার নিকট চাঁদা দাবি করে। ওইদিনই সন্ধ্যায় তাকে ২ সপ্তাহের মধ্যে ৩০ লাখ টাকা চাঁদা না দিলে এবং এ ঘটনা কাউকে জানালে আমাকে খুন করে ফেলার হুমকি দেয় এবং আমার ওপর আক্রমণ করে। এতে আমি আহত হই। এ সময় তিনি এসব হুমকি ও অপতৎপরতা থেকে মুক্তি পেতে সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি, পুলিশ কমিশনারসহ সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর