× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

মাগুরায় মানববন্ধন না করে ফিরে গেল একপক্ষ

বাংলারজমিন

মাগুরা প্রতিনিধি
২৫ অক্টোবর ২০২১, সোমবার

মাগুরার জগদলে ১৫ই অক্টোবর নিহত সবুর মোল্লা, কবির মোল্লা, রহমান মোল্লা হত্যা মামলার আসামি নজরুলসহ অন্যদের গ্রেপ্তারের দাবিতে রোববার দুপুর মানববন্ধন করতে এসেছিলেন নিহতদের পরিবারসহ এলাকাবাসী। তবে সদর থানা পুলিশের আশ্বাসে তারা মানববন্ধন না করে ফিরে গেছেন।
এ বিষয়ে সবুর মোল্লার ভাতিজা মাহফুজ ইয়াছিন বলেন, ‘পরিবারের সদস্য ও এলাকাবাসীর সঙ্গে আলাপ করে আমরা রোববার দুপুর ১২টায় মাগুরা শহরের চৌরঙ্গী এলাকায় আমার চাচাদের খুনি নজরুলসহ অন্যদের গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধনের আয়োজন করি। সে অনুযায়ী আমাদের পরিবারের সদস্যসহ এলাকার লোকজন ১২টার মধ্যেই চৌরঙ্গী এলাকায় প্রেস ক্লাবের সামনে জড়ো হই। মানববন্ধনে দাঁড়াবার প্রাক্কালে সদর থানা পুলিশের একটি দল সেখানে আসে। তারা জানায়- ৩ দিনের মধ্যে আসামিদের গ্রেপ্তার করা হবে। সে কারণে আপাতত মানববন্ধন না করার জন্য অনুরোধ জানায়। নিহত রহমান মোল্লার ছেলে সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মঞ্জুরুল আলমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে বিষয়টি নিশ্চিত হর। এ সময় মানববন্ধন না করার সিন্ধান্ত নিই’।
এ বিষয়ে মাগুরা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মঞ্জুরুল আলম বলেন, ‘আমরা আসামি গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। মানববন্ধন না করার বিষয়ে আমার সঙ্গে কারো কোনো কথা হয়নি। তারা মানববন্ধন করলে তাদের মতো করে করবে। আসামিদের গ্রেপ্তারের বিষয়ে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছি এখানে ৩ দিন ৫ দিনের কোনো বিষয় নেই। যে কোনো মুহূর্তে তারা গ্রেপ্তার হতে পারে’। প্রসঙ্গত, গত ১৫ই অক্টোবর মাগুরা সদর উপজেলার জগদল আসন্ন ইউপি নির্বাচন ঘিরে ২ মেম্বার প্রার্থীর দ্বন্দ্বের জেরে ৪ ব্যক্তি খুন হয়। যাদের মধ্যে রয়েছেন জগদলের গ্রাম্য মাতবর সাবেক ইউপি মেম্বার সবুর মোল্লা, তার আপন ভাই কবির মোল্লা ও চাচাতো ভাই রহমান মোল্লা। এই ৩ খুনের ঘটনায় তাদের ভাই আনোয়ার মোল্লা ৬৮ জনকে আসামি করে সদর থানায় মামলা করেছেন। একই ঘটনায় নিহত ইমরান হত্যার দায়ে অপর মামলায় আসামি হয়েছে ৫২ জন। এই ১২০ জন আসামির মধ্যে গত ১০ দিনে মাত্র ৪ জন আসামি গ্রেপ্তার হয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর