× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ নভেম্বর ২০২১, সোমবার , ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

সাইবার নিরাপত্তার বিষয়ক প্রতিযোগিতায় ৫টি ল্যাপটপ জিতে নিল শিক্ষার্থীরা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(১ মাস আগে) অক্টোবর ২৫, ২০২১, সোমবার, ৪:২৮ অপরাহ্ন

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের তিনজন এবং বরিশালের দুইজন শিক্ষার্থী সাইবার নিরাপত্তা ও ডিজিটাল সাক্ষরতার উপর অনলাইন কনটেন্ট তৈরি করে ল্যাপটপ জিতেছেন শনিবার অনুষ্ঠিত একটি অনলাইন অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। ভার্চুয়াল পুরস্কার অনুষ্ঠানটিতে উপস্থিত ছিলেন ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশের (ইউল্যাব) বোর্ড অব ট্রাস্টিজের উপদেষ্টা অধ্যাপক ইমরান রহমান, মোঃ আফজাল হোসেন সারওয়ার, পলিসি স্পেশালিস্ট (এডুকেশনাল ইনোভেশন), এটুআই এবং মোঃ  জাকারিয়া, সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার, দ্য এশিয়া ফাউন্ডেশন-বাংলাদেশ।
বিজয়ীদের মধ্যে শ্রীমঙ্গল থেকে রয়েছেন অনন্ত দূর্বা, অগ্নিভ প্রাঞ্জন এবং দেবশ্রী যাদব এবং বরিশাল থেকে জান্নাতী আক্তার তুভা এবং কথক বিশ্বাস।
ইউএস স্টেট ডিপার্টমেন্টের সাউথ এশিয়া গভর্ন্যান্স ফান্ডের অর্থায়নে এবং এশিয়া ফাউন্ডেশন-বাংলাদেশ দ্বারা পরিচালিত “বিয়িং সেফ, বিয়িং সাইবার পজিটিভ” শীর্ষক একটি প্রকল্পের অধীনে প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়।
এই প্রকল্পের অধীনে, ইউল্যাবের সেন্টার ফর ক্রিটিক্যাল অ্যান্ড কোয়ালিটেটিভ স্টাডিজ (সিকিউএস) বাংলাদেশের শহরাঞ্চলের বাইরে বসবাসকারী ১৩ থেকে ১৯ বছর বয়সী শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেট ব্যবহারের ধরণ বোঝার জন্য একটি প্রাথমিক সমীক্ষা পরিচালনা করেছে।
জরিপের ফলাফলের উপর ভিত্তি করে, প্রকল্প দলটি ভৈরব, বরিশাল, সাতক্ষীরা, যশোর এবং শ্রীমঙ্গলের অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের জন্য একটি অনলাইন কর্মশালা পরিচালনা করে।
পরবর্তীতে পরামর্শদাতাদের তত্ত্বাবধানে, এই কিশোর-কিশোরীরা লেখালেখি, অঙ্কন, ফটোগ্রাফি, পোস্টার এবং ভিডিও’র মাধ্যমে ভার্চুয়াল জগতে তাদের নিজস্ব অভিজ্ঞতাকে কর্মশালায় প্রাপ্ত জ্ঞানের সাথে যুক্ত করে এবং ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে তাদের সৃজনশীল সৃষ্টি প্রকাশ করে। বিচারকদের বাছাইপর্ব শেষে শীর্ষ পাঁচ কনটেন্ট নির্মাতা পুরস্কার পেয়েছেন।
সিকিউএস এর পরিচালক এবং এই প্রকল্পের প্রধান অধ্যাপক সুমন রহমান তার সমাপনী মন্তব্যে বলেন, "আমরা এই কিশোর-কিশোরীদের সাইবার পজিটিভ বলি কারণ তারা বিপদ দেখে সাইবার জগৎ থেকে লুকায়নি বা পালায়নি। বরং তারা নিজেদের এবং সঙ্গীদের জন্য একটি নিরাপদ ভার্চুয়াল জগতের সূচনা করার লক্ষ্যে সাইবার নিরাপত্তা ও ডিজিটাল সাক্ষরতার উপর অনলাইন কনটেন্ট তৈরি করে সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্মে প্রচার করেছে।”।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর