× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৭ নভেম্বর ২০২১, শনিবার , ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বৃটেনের ইপসুইচে লেটস বিট ক্যান্সার চ্যারিটি রোডশো ও অ্যাওয়ারনেস কার্যক্রম অনুষ্ঠিত

অনলাইন

বৃটেন থেকে প্রতিনিধি
(৪ সপ্তাহ আগে) অক্টোবর ২৭, ২০২১, বুধবার, ২:০৬ অপরাহ্ন

বৃটেনের লেটস বিট ক্যান্সার স্লোগানকে সামনে রেখে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার ও জেনারেল হাসপাতাল যুক্তরাজ্যে দেশব্যাপী চ্যারেটি রোডশো ও ক্যান্সার অ্যাওয়ারনেস কার্যক্রম শুরু করেছে। মঙ্গলবার ইপসুইচের একটি রেস্টুরেন্টে এক চ্যারিটি ডিনার ও ক্যান্সার অ্যাওয়ারনেস এর কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের আয়োজক ইস্ট ইন্গলিয়া রিজওনের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আব্দুল শহীদ, শাহ মাহবুব আলম শামীম, আলহাজ্ব মানিক মিয়া, আব্দুল মতলিব, মিসবাহ উদ্দিন, আহমেদ হোসেন বকুল, হারুন রশীদ ও হাফিজুর রহমান হাফিজ। চ্যানেল এস এর হেড অব প্রোগ্রাম ফারহান মাসুস খান এর সঞ্চালনায় ফান্ডরাউজিং পরিচালনা করেন শায়খ আবু সাঈদ আনসারী। চ্যারিটেবল কাজে সকল ধর্মের আদেশ-উপদেশমূলক বিভিন্ন তথ্যের উদ্ধৃতি দিয়ে আলোকপাত করেন আবু কাওসার। অনুষ্ঠানে নাসিদ পরিবেশন করেন শিল্পী আলাউর রহমান। বিয়ানীবাজার ক্যান্সার ও জেনারেল হাসপাতালের চলমান কার্যক্রম তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ফান্ডরাইজিং ডাইরেক্টর আব্দুস শফিক এবং ট্রাস্টের চ্যারিটেবল বিভিন্ন দিন নিয়ে বক্তব্য রাখেন ট্রাস্টি আব্দুল করিম নাজিম, মার্কেটিং ডাইরেক্টর ফরহাদ হোসেন টিপু ও ট্রাস্টি আব্দুস সামাদ।

বক্তারা প্রাসঙ্গিকভাবে উল্লেখ করেছেন, প্রবাসীদের বিরাট একটি অংশের অর্থ সহায়তায় প্রতিষ্ঠিত বিয়ানীবাজার ক্যান্সার এন্ড জেনারেল হাসপাতাল এর অবস্থান সিলেটের বিয়ানীবাজারে পৌর শহরে হলেও এর সেবার পরিধি সিলেটসহ দেশব্যাপী বিস্তৃত।
প্রতিষ্ঠানটি কোন আঞ্চলিকতা বা সিলেট অঞ্চল কেন্দ্রিক দুর্বলতা ইত্যাদিতে জিরোটলারেন্স নীতি অনুসরণ করে সেবা প্রদান করে আসছে। যুক্তরাজ্য প্রবাসীদের অর্থায়নে দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সার চিকিৎসার লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে বিয়ানীবাজার ক্যান্সার ও জেনারেল হাসপাতাল প্রতিষ্ঠিত হয়। সেবামূলক হাসপাতালটি প্রবাসীদের অর্থায়নে ধীরে ধীরে একটি পূর্ণাঙ্গ হাসপাতাল রুপে প্রতিষ্ঠার জন্য সকল ধরনের সর্বাত্মক চেষ্টা অব্যাহত আছে।
ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি প্রায় ১ লক্ষ রোগীকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেছে। হাসপাতালের উদ্যোগে স্থানীয় পর্যায়ে ব্রেস্ট ক্যান্সার প্রতিরোধে এওয়ারনেস কার্যক্রম পরিচালনা এবং হাসপাতালের হেলথ ভিজিটররা বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রায় ৬৫ হাজার পরিবারে ক্যান্সার রোগ সম্পর্কে স্বাস্থ্য সচেতনতা প্রদান করেছেন। সাম্প্রতিক করোনা মহামারী সময়ে বিনামূল্যে সরাসরি চিকিৎসা সেবা, টেলিমেডিসিন সেবা প্রদানের পাশাপাশি করোনা আইসোলেশন ইউনিট চালু করে প্রায় ২২ হাজার রোগীকে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান করেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর