× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৭ নভেম্বর ২০২১, শনিবার , ১৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

‘রাজাকার’ অভিযোগের স্তুপ আওয়ামী লীগ অফিসে

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার
(৪ সপ্তাহ আগে) অক্টোবর ২৭, ২০২১, বুধবার, ৭:৫৫ অপরাহ্ন

আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাই এখন একে অপরের দিকে ‘রাজাকার’–এর তকমা লাগানোর চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। চলমান ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের জন্য প্রার্থী বাছাই করতে গিয়ে তাদেরকে এসব অভিযোগ শুনতে হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। আজ রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেল এক অনুষ্ঠানে বক্তব্যে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়টিকে ‘দুর্বিষহ’ আখ্যায়িত করেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘যার সঙ্গে তার বনবে না, তাকে বলবে রাজাকারের ছেলে। অথবা বলবে রাজাকারের নাতি বা শান্তি কমিটির সদস্য ছিল তারা। এসব অভিযোগ করে একজন আরেকজনের প্রতিপক্ষকে (আওয়ামী লীগের এক মনোনয়ন প্রত্যাশী আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশীকে)। এসব অভিযোগের স্তূপ হয়ে গেছে পার্টি অফিসে। ‘করোনাকালে শিল্প ও বাণিজ্য উন্নয়নে শেখ হাসিনার ভূমিকা’ শিরোনামে সভাটির আয়োজন করে আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্যবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটি।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি ব্যবসায়ীদের রাজনীতি করার বিরুদ্ধে নই। কিন্তু রাজনীতিকে যখন ব্যবসার হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা হয়, সেটাকে আমি ঘৃণা করি। এ দেশে অনেকে ব্যবসা না করেও রাজনীতিতে নেতা হয়ে ব্যবসা শুরু করেছেন।’ ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, ব্যবসা বাণিজ্য করতে চাইলে সাম্প্রদায়িক অপশক্তিকে রুখতে হবে। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির (এফবিসিসিআই) সভাপতি জসীম উদ্দিন, সাবেক সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ এবং আওয়ামী লীগের শিল্প ও বাণিজ্যবিষয়ক সম্পাদক মো. সিদ্দিকুর রহমান।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২৭ অক্টোবর ২০২১, বুধবার, ৮:০৭

ডিবির গোপন রিপোর্ট সংগ্রহ করে তাদের পূর্ব পুরুষদের তথ্য যাচাই করলেই তো রাজাকার কিনা জানা যাবে । রাজাকারদের বংশধর ত্যাগী নেতাদের স্থলাবিষিক্ত ও দৌরাত্ম প্রদর্শনের অভিযোগ আছেই। এমপিরা লাঠিয়াল বাহিনী গড়তে এদের দলে ভিড়াচ্ছেন। নমিনেশন এ এমপিদের সম্পৃক্ত করবেন না । দলের স্থানীয় কমিটির হাতে বাছাই করার ক্ষমতা দিন। এমপির কর্মকাণ্ড সীমাবদ্ধ করে দলের কমিটির ক্ষমতা বাড়ান। নতুবা আওয়ামীলীগের পরিণতি খারাপ হবে । এমপিরা একচ্ছত্র ক্ষমতার অপব্যবহার করবে । ক্ষমতার ভাগাভাগি থাকলে বেলেন্স অফ পাওয়ার হবে ।

রুহুল আমীন যাক্কার
২৭ অক্টোবর ২০২১, বুধবার, ১০:৩৬

তাই বলেছিলাম ; ইউ/পি নির্বাচন দলীয়ভাবে না করে উন্মুক্ত রাখতে।

অন্যান্য খবর