× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২০ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার , ৬ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ঢাবিতে অশ্লীল গানে ছাত্রীকে নাচানোর অভিযোগ

শিক্ষাঙ্গন

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার
(২ মাস আগে) নভেম্বর ১৭, ২০২১, বুধবার, ৮:৫০ অপরাহ্ন

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) প্রথম বর্ষের এক ছাত্রীকে দুই ঘণ্টা ধরে নাচতে বাধ্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল মঙ্গলবার রাত ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত পাঁচ ছাত্রী ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থীকে নাচেতে বাধ্য করেন। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রাব্বানীর কাছে লিখিত অভিযোগ তুলেছেন রোকেয়া হলের প্রথম বর্ষের এক ছাত্রী।

 ঘটনায় অভিযুক্তরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধবিজ্ঞান বিভাগের জুলি মারমা, তৃতীয় বর্ষের নাসরিন জাহান খুশি, মার্কেটিং বিভাগের জান্নাত নিপো ও রিনাকি চাকমা, দর্শন বিভাগের পূজা দাস। তারা সবাই তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে।

আর এ ঘটনায় হয়রানির শিকার শিক্ষার্থীর নাম আয়েশা আক্তার রিজু। ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ২০১৯-২০ সেশনের শিক্ষার্থী।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী জানান, জুলি আপুর কাছে আমি ভাত খাই এটার আঞ্চলিক ভাষা জানতে চাই। এ প্রশ্নে তিনি রাগান্বিত হয়ে বলেন, তোর ত অনেক সাহস! তোকে র‍্যাগ দিতে হবে। তখন নিপু আপুকে পাঠিয়ে অন্য রুমের আমার আরেকজন সহপাঠীকে র‍্যাগ দেওয়ার জন্য নিয়ে আসেন।
এরপর আমাদের দু’জনের উদ্দেশ্যে জুলি আপু বলেন, তোরা ২ মিনিট ভেবে বল, তোরা কী করবি। না হয় খারাপ কিছু ঘটবে কিন্তু। আমরা এমন কিছু দেবো যা তোরা করতে পারবি না। এরপর খুশি আপু বললেন, তোদের আজ নাচাবো। তিনি নিপু আপুকে বললেন, এই খারাপ একটা গান ছাড়। তোদের আজ খারাপ গানে নাচাবো। পেছন থেকে আপু বলছিলেন, র‌্যাগ দে, র‍্যাগ দে, চিল হবে চিল।’

এরপর আমি ও আমার সহপাঠীকে অনেক সময় ধরে নাচতে বাধ্য করে। র‌্যাগ শেষে জুলি ও খুশি বলেন, ম্যামকে বলবি? ম্যামকে বলে কোন লাভ নাই। আমাদের কিছুই হবে না।

অভিযোগের বিষয় জানতে অভিযুক্ত জুলি, খুশি, নিপো, রিনাকি ও পূজার সঙ্গে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি।

লিখিত অভিযোগের বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ডক্টর গোলাম রাব্বানী  মানবজমিনকে বলেন, আমরা লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগটি যাচাই-বাছাইয়ের পর হল প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর করেছি। হল প্রশাসন তদন্ত করে এদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর