× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার , ১৩ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বৈচিত্র্য-সাম্য-অন্তর্ভুক্তি বিষয়ে সিসিমপুরের নতুন প্রকল্প

এক্সক্লুসিভ

স্টাফ রিপোর্টার
২২ নভেম্বর ২০২১, সোমবার

 শিশুদের জন্য নতুন প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে শিশুদের প্রিয় অনুষ্ঠান সিসিমপুর কার্যক্রমের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান সিসেমি ওয়ার্কশপ। ‘প্রমোটিং এডুকেশন ফর আর্লি লার্নার্স অ্যাক্টিভিটি’ নামের প্রকল্পে বৈচিত্র্য-সাম্য-অন্তর্ভুক্তি বিষয়ে গুরুত্ব দিয়ে নানামুখী কার্যক্রম বাস্তবায়ন করবে সংস্থাটি। তিন বছর মেয়াদি নতুন এই প্রকল্পে আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে ইউএসএআইডি।
নতুন এই প্রকল্পের আওতায় শিশুদের জন্য ৫২ পর্বের টেলিভিশন অনুষ্ঠান তৈরি করা হবে। যা প্রচারিত হবে দেশের বিভিন্ন টেলিভিশন চ্যানেলে। এর পাশাপাশি প্রকাশিত হবে শিশুদের উপযোগী গল্পের বই, ব্রেইল বই এবং ডিজিটাল শিক্ষা উপকরণ। একইসঙ্গে থাকবে বিদ্যালয় ও কমিউনিটিভিত্তিক কার্যক্রম। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের অবহেলিত শিশু, প্রতিবন্ধী শিশু এবং মেয়ে শিশুদের বিদ্যালয়ে ধরে রাখতে এবং তাদের শিখন ফলাফলকে আরও এগিয়ে নিতে বিদ্যালয়ে এবং কমিউনিটিতে কাজ করবে সিসিমপুর।
বিশ্ব শিক্ষা সপ্তাহ উপলক্ষে যৌথভাবে নতুন এই প্রকল্পের ঘোষণা দেয় সিসেমি ওয়ার্কশপ বাংলাদেশ এবং ইউএসএআইডি। যা উদ্বোধন করেন ইউএসএআইডি বাংলাদেশের মিশন ডিরেক্টর ক্যাথরিন ডেভিস স্টিভেন্স।
করোনা পরিস্থিতির কারণে সীমিত পরিসরের আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ডের সদস্য প্রফেসর ড. এ কে এম রিয়াজুল হাসান, এশিয়াটিক মার্কেটিং কমিউনিকেশন্সের প্রধান সারা যাকের ও সিসিমপুরের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শাহ আলম।
নতুন প্রকল্প সম্পর্কে সিসিমপুরের নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ শাহ আলম বলেন, সিসিমপুর সবসময়ই শিশুদের বিকাশ ও উন্নয়নে নতুন নতুন বিষয় নিয়ে কাজ করতে চায়। আমরা দেশের শিশুদের শিক্ষার মানকে এগিয়ে নিতে, তাদেরকে আরও সহনশীল নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে এবং দেশের মানুষের সঙ্গে মিলেমিশে বসবাস করার জন্য মানবিক গুণাবলী অর্জনে সহায়তা করতে বৈচিত্র্য-সাম্য-অন্তর্ভুক্তি এই তিন বিষয়কে উপজীব্য করে এবং শিখন ফলাফলকে প্রাধান্য দিয়ে ৫২ পর্বের নতুন টেলিভিশন অনুষ্ঠান তৈরি করতে যাচ্ছি। একই সঙ্গে এসব বিষয়ের ওপর গল্পের বই, ব্রেইল বই ও নানা শিক্ষা উপকরণও তৈরি করা হবে। পাশাপাশি চালানো হবে কমিউনিটিভিত্তিক নানা কার্যক্রম। আমরা বিশ্বাস করি নতুন এই প্রকল্প আমাদের শিশুদের আরও সম্পন্ন, আরও সবল এবং আরও সদয় হয়ে গড়ে উঠতে সাহায্য করবে। উল্লেখ্য, ২০০৫ সাল থেকে প্রাক-প্রাথমিক শিশু বিকাশ কার্যক্রমের আওতায় ‘সর্বত্র শিশুরা হয়ে উঠুক আরও সম্পন্ন, আরও সবল এবং আরও সদয়’ এই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে সিসেমি ওয়ার্কশপ-এর বাংলাদেশি সংস্করণ ‘সিসিমপুর’। সিসিমপুর অনুষ্ঠানটি সমপ্রচারসহ নানামুখী কার্যক্রম বাস্তবায়নে সহায়তা করছে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর