× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১৯ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার , ৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

শেষটাও ভালো হলো না

প্রথম পাতা

ইশতিয়াক পারভেজ
২৩ নভেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার

এক মাস আগেই মিরপুর শেরেবাংলা মাঠে অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডকে টি-টোয়েন্টি সিরিজ হারিয়েছে বাংলাদেশ। সেই উল্লাসে ভাসতে ভাসতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে গিয়েছিল টাইগাররা। কিন্তু সুপার টুয়েলভ পর্বে টানা হারে খেই হারায় দল। উড়ন্ত আত্মবিশ্বাস আছড়ে পড়ে মাটিতে। ধারণা করা হচ্ছিল দেশে ফিরে বদলাবে চিত্র। কিন্তু পাকিস্তানের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে টানা তিন হারে হোয়াইটওয়াশ টাইগাররা। তবে গতকাল সিরিজের শেষ ম্যাচের শেষ ওভারে জেগেছিল জয়ের সম্ভাবনা। যা হাওয়ার মতো এসে উঁকি দিয়ে চলেও গেছে।
শেষ ৬ বলে পাকিস্তানের জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ৮ রান। এই রান তুলতে তিন উইকেট হারিয়ে হারতেই বসেছিল সফরকারীরা। শেষ বলে যখন ২ রান প্রয়োজন তখন চার হাঁকিয়ে জয় ছিনিয়ে নিয়েছে তারা। এমন পরিস্থিতিকে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ কী বলে ব্যাখ্যা দেবেন! জবাব দিলেন। হয়তো গোটা সিরিজের প্রতীকী চিত্রটাই তুলে ধরলেন টাইগার অধিনায়ক। তিনি বলেন, ‘কিছুটা তো হার্টব্রেকিং। অলমোস্ট খুব ক্লোজে গিয়েছিলাম। দুর্ভাগ্যজনক, হয়নি।’ হ্যাঁ, হয়নি গোটা সিরিজেই। বাংলাদেশ ভক্তদের জন্য এই হোয়াইটওয়াশও এক কথায় ‘হার্টব্রেকিং’।
অন্যদিকে ধারণা করা হচ্ছিল টানা ব্যর্থতার দায় নিয়ে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ হয়তো নেতৃত্ব থেকে অবসরের ঘোষণা দিবেন। কিন্তু গতকাল ম্যাচ শেষে তিনি এ বিষয়ে নীরব রইলেন। যদিও গুঞ্জন, এটাই তার শেষ অধিনায়কত্ব। আগামী বছর দেশের মাটিতে বাংলাদেশ দল ফের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে। ফেব্রুয়ারি-মার্চে সেই  সিরিজে প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। আর সেই সিরিজ দিয়েই শুরু হবে আগামী বছর অস্ট্রেলিয়াতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রস্তুতি। সেখানে দেখা যাবে টি-টোয়েন্টির নয়া অধিনায়ককে। ধারণা করা হচ্ছে সবকিছু ঠিক থাকলে সাকিব আল হাসানই হচ্ছেন পরবর্তী অধিনায়ক। তবে নতুন নামও রয়েছে আলোচনায়। গতকাল মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ দলে আসা তরুণদের জন্য অবশ্য বার্তা দিয়ে গেছেন নতুন দিনের। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই। অনেক নতুন ছেলে ছিল। যারা অভিষিক্ত হয়েছে। সাইফ ডেব্যু করেছে। আজ (গতকাল) শহীদুল করেছে এবং বেশ ভালো বোলিং করেছে। এটা তরুণদের জন্য খুব ভালো সুযোগ তৈরি করেছে। তবে আমার মনে হয় একটু সময় লাগবে। কেননা, টি-টোয়েন্টি এতটা সহজ না। বিশেষ করে তরুণদের জন্য। আমি মনে করি তারা এটি ম্যানেজ করে নেবে। এবং তারা খুব ভালো পারফর্ম করবে।’
অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মিরপুর শেরেবাংলায় যে উইকেট ছিল তা নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা কম হয়নি। বলা হচ্ছিল সেই উইকেটে খেলেই বিশ্বকাপে বাংলাদেশ দলের ব্যাটিং ভরাডুবি। তাই পাকিস্তান সিরিজে তেমন উইকেট হবে না বলেই জানানো হয়। আসলেই কি বদলেছে উইকেট! কারণ, তিনটি ম্যাচেই বাংলাদেশ দল আগে ব্যাট নিয়ে জয়ের মুখ দেখেনি। আর টাইগার ব্যাটাররা ব্যর্থতার গণ্ডি চিড়ে বেরও হতে পারেনি। প্রথম ম্যাচে ১২৭, দ্বিতীয়টি ১০৮ ও শেষটিতে ১২৪ রানে থামে দল। প্রতিটি ম্যাচেই ৭টি করে উইকেট হারায় টাইগাররা। তাহলে কি উইকেটে কোনো পরিবর্তন আসেনি? মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ অবশ্য জানালেন এবারের উইকেট আগের তুলনায় অনেকটাই ভালো। তিনি বলেন, ‘উইকেট বেটার ছিল (অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড সিরিজের চেয়ে)। যদি দুটি শেষ সিরিজের সঙ্গে এটির তুলনা করা হয় তাহলে বলবো এটা বেটার উইকেট ছিল।’ তবে উইকেট যেমনই হোক জয়তো পায়নি বাংলাদেশ। তাই হারানো আত্মবিশ্বাসও ফিরে আসেনি।  অধিনায়ক বলেন, ‘আমার মনে হয় এক-দুটা ম্যাচ যদি জেতা যেত তাহলে টিমের আত্মবিশ্বাসটা আরও ভালো থাকতো। যে রকম অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড সিরিজের সময় আমাদের ড্রেসিংরুমটা উৎফুল্ল ছিল। অবশ্যই দল হারলে সব টিমমেটেরই খারাপ লাগে। অনেক ডাউট ক্রিয়েট হয়। আমার মনে হয় ছেলেরা সবাই চেষ্টা করেছে, আমার মনে হয় জানপ্রাণ দিয়ে চেষ্টা করেছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে ফলটা আমাদের পক্ষে আসেনি।’
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর