× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ নভেম্বর ২০২১, সোমবার , ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

নৌকা প্রতীক না পেয়ে সড়কে আগুন, অবরোধ

বাংলারজমিন

শাহরাস্তি ( চাঁদপুর) প্রতিনিধি
২৫ নভেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার
সর্বশেষ আপডেট: ১০:২৪ পূর্বাহ্ন

শাহরাস্তিতে নৌকা প্রতীক না পাওয়ায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের সমর্থকরা সড়কে গাছের গুঁড়ি ফেলে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে যান চলাচল বন্ধ করে দেয়। বুধবার রাতে চাঁদপুর কুমিল্লা আঞ্চলিক মহাসড়কের শাহরাস্তি উপজেলার ওয়ারুক বাজার এলাকায় টামটা দক্ষিণ ইউপি চেয়ারম্যান জহিরুল আলম মানিকের বিক্ষুব্ধ কর্মী ও সমর্থকরা এ অবরোধ সৃষ্টি করেন। এতে ঘণ্টাব্যাপী ওই তাণ্ডবে প্রায় ৩ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে পুলিশ এসে যান চলাচল স্বাভাবিক করে।

প্রত্যক্ষদর্শী, স্থানীয়রা জানান, সম্প্রতি শাহরাস্তি উপজেলায় ১০টি ইউপিতে বর্ধিত সভার মাধ্যমে জেলা নেতৃবৃন্দের সুপারিশক্রমে ৭২ জন নৌকা প্রতীক প্রত্যাশীর নাম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মনোনয়ন বোর্ডের নিকট পাঠানো হয়। চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনের জন্য মঙ্গলবার (২৩ নভেম্বর) রাতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ডের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতৃবৃন্দ চট্টগ্রাম বিভাগের চেয়ারম্যান পদে নৌকার মনোনীত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন। সেখানে চাঁদপুরের শাহরাস্তি উপজেলার টামটা দক্ষিণ ইউপির বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পান ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শফিকুর রহমান মজুমদার।

এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন বর্তমান চেয়ারম্যান জহিরুল আলম মানিকের সমর্থকরা। দ্রুত তার মনোনয়নের বাতিলের দাবিতে সড়ক অবরোধ করেন স্লোগান দিতে থাকেন তারা।
সড়ক অবরোধের বিষয়ে বর্তমান চেয়ারম্যান জহিরুল আলম মানিক গণমাধ্যমকে বলেন, অবরোধের বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারছি না। আমি কিছুক্ষণ আগেই ঢাকা থেকে এসেছি। এসে দেখি এখানে প্রায় দেড় থেকে দুই হাজার লোক আমার জন্য অপেক্ষা করছে। আমি তাদের সবাইকে সান্ত¡না দিয়ে বাসায় চলে যাই। পরে ওসি ও ইউএনও'র ফোন পেয়ে আমি বিষয়টি জানতে পেরে দ্রুত ঘটনাস্থলে চলে আসি এবং যান চলাচল স্বাভাবিক করি।

তিনি বলেন, ২০১৬ সালে দল আমাকে মনোনয়ন দেয়। এবার কিভাবে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারী একজনকে মনোনয়ন দিলো তা আমার বোধগম্য নয়। যেভাবেই হোক, আমি যে সিদ্ধান্ত দিয়েছেন তা আমি মেনে নিয়েছি। আমার কর্মী-সমর্থকদের শান্ত থাকার আহ্বান জানিয়েছি।
এ বিষয়ে শাহরাস্তি থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মোরশেদ আলম জানান, সড়ক অবরোধের খবর পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ এবং যান চলাচল স্বাভাবিক করে। তবে অনাকাক্সিক্ষত কোনো ঘটনা ঘটেনি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পুলিশের টিম ঘটনাস্থলে রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
২৪ নভেম্বর ২০২১, বুধবার, ৯:০৫

স্থানীয় নির্বাচন দলমুক্ত না করলে সব দলের বিপদ ঘনিয়ে আসবে খুব বেশি দূর নয়।

অন্যান্য খবর