× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ৮ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ময়লার গাড়ির ধাক্কায় ফের মৃত্যু

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
২৬ নভেম্বর ২০২১, শুক্রবার

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) একটি ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনায় আন্দোলন চলার মধ্যেই এক গণমাধ্যম-কর্মীর প্রাণ কেড়ে নিয়েছে বেপরোয়া আরেকটি ময়লার গাড়ি। রাজধানীর পান্থপথে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নিহত হয়েছেন আহসান কবির খান (৫০) নামে ওই ব্যক্তি। তিনি রাইড শেয়ারিং ‘পাঠাও’ এর মোটরসাইকেলে করে গন্তব্যে যাচ্ছিলেন। এই ঘটনায় ঘাতক ময়লার গাড়িটি জব্দ করেছে পুলিশ। তবে চালক পালিয়ে গেছে।
গতকাল বেলা আড়াইটার দিকে পান্থপথ শাপলা ফার্নিচার দোকানের সামনের রাস্তায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। ময়লার গাড়ির চাকা নিহত কবির খানের মাথার উপর দিয়ে উঠে যাওয়ায় ভয়ে তাকে বহনকারী পাঠাও চালক পালিয়ে গেছেন বলে জানিয়েছে প্রত্যক্ষদর্শীরা। এদিকে, ঘাতক ময়লার গাড়ির চালকের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে জানিয়ে ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, ইতিমধ্যে ডিএনসিসি’র প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এসএম শরীফ-উল ইসলামের নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া নিহতের পরিবারের কোনো সহযোগিতার প্রয়োজন হলে তা করা হবে।
নিহতের মামাতো ভাই মিজানুর রহমান জানান, ঝালকাঠি সদর উপজেলার শেরজুত গ্রামের আবদুল মান্নান খানের ছেলে নিহত কবির।
এক ছেলে এক মেয়েসহ স্ত্রী নাদিরা পারভীন রেখাকে নিয়ে বড় মগবাজার সোনালীবাগ চান বেকারী গলির ৫৩ নম্বর বাসায় থাকতেন। রাজধানীর ফয়জুর রহমান আইডিয়াল ইনস্টিটিউটের ৯ম শ্রেণিতে পড়ে তার ছেলে সাদবান শাহরিয়ার কাইফ (১৫) ও ৪র্থ শ্রেণিতে পড়ে মেয়ে সাফরিন কবির দিয়া (১০)।
মিজানুর রহমান জানান, তিনি দীর্ঘদিন একটি জাতীয় দৈনিকে পেস্টিং বিভাগে কাজ করতেন। সাত বছর আগে চাকরি ছেড়ে দিয়ে প্রিন্টিং ব্যবসা শুরু করেন। চলতি মাসে আরেকটি জাতীয় দৈনিকে গ্রাফিক্স ডিজাইনার হিসেবে চাকরিতে যোগ দেন। একইসঙ্গে পেইজ মেকআপের কাজ করতেন। এছাড়া গার্মেন্টস এক্সসরিজেরও ব্যবসা ছিল তার।
নিহতের স্ত্রী নাদিরা পারভীন রেখা বলেন, কবির মোটরসাইকেল চালাতে পারেন না। সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তিনি বাসা থেকে বের হন। তখন বলে যান, ব্যবসার কাজে তাকে ২-৩ জায়গায় যেতে হবে। এরপর সেখান থেকে যাবেন মিরপুরে। দুপুরে তারা খবর পান, কবিরকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। পরে হাসপাতালে গিয়ে কবিরকে মৃত অবস্থায় দেখতে পান। এ ঘটনায় জড়িতদের উপযুক্ত বিচার দাবি করেন তিনি।
এ বিষয়ে কলাবাগান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আ.ফ.ম আসাদুজ্জামান জানান, পাঠাও এর মোটরসাইকেলে করে যাচ্ছিলেন আহসান কবির। পান্থপথে ডিএনসিসি’র একটি ময়লা বহনকারী ডাম্পিং ট্রাক পিছন দিক থেকে মোটরসাইকেলটিকে ধাক্কা দেয়। এতে আহমেদ কবির নিচে পড়ে গেলে ময়লার ট্রাকটির চাকা তার মাথার উপর দিয়ে উঠে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।
তিনি আরও জানান, এই দুর্ঘটনা দেখে তাকে বহনকারী পাঠাও এর মোটরসাইকেল চালক দ্রুত মোটরসাইকেলটি নিয়ে চলে গেছেন। তবে ঘাতক ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। এর চালক পালিয়ে গেছে। তাকে ধরতে অভিযান চলছে।
প্রসঙ্গত, গত বুধবার গুলিস্তানে ডিএসসিসি ময়লার গাড়ির ধাক্কায় নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসান নিহত হন। এ নিয়ে রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন করছে শিক্ষার্থীরা। তারা সহপাঠী নিহতের বিচার ও নিরাপদ সড়কের দাবি জানিয়ে আসছেন। গতকালও ঢাকার কয়েকটি সড়কে তারা বিক্ষোভ করে এ হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবি করেছেন। তাদের দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে তারা জানিয়েছেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর